Day: October 27, 2019

ক্যাব চালকের কাছে কনডম না থাকায় জরিমানা

ক্যাব চালকের কাছে কনডম না থাকায় জরিমানা

অন্য দুনিয়া, বিশ্ব, স্বাস্থ্য
দিল্লির অধিকাংশ অ্যাপ ক্যাব চালকের ধারণা তাদের গাড়ির ফার্স্ট-এইড বক্সে থাকতেই হবে কনডম। না হলেই মোটা অঙ্কের জরিমানা দিতে হতে পারে তাঁদের। এই জল্পনায় ডুবে চালকরা কনডম রাখছেন গাড়ির ফার্স্ট এইড বক্সে। শুনতে অদ্ভুত লাগলেও, এটাই সত্যি। ঘটনার সূত্রপাত উবের চালক ধর্মেন্দ্রর বিরুদ্ধে একটি মামলা দিয়ে। ক্যাব চালক ধর্মেন্দ্র দাবি তাঁর গাড়িতে প্রাথমিক চিকিৎসাবাক্সে কনডম না থাকায় তাঁকে মোটা অঙ্কের জরিমানা গুনতে হয়েছে। এই খবরই ছড়িয়ে পড়ে রটনা হয়ে। যদিও চালকের এই দাবির স্বপক্ষে কোনও প্রমাণ মেলেনি। পরে জানা যায়, তাঁর গাড়ির গতি অত্যন্ত বেশি থাকায়, দিল্লি পুলিশ তাঁকে জরিমানা করে। কিন্তু সত্যিটা জানার পরেও জল্পনা কমেনি। দিল্লির অ্যাপ ক্যাব চালকরা এখন ফার্স্ট এইড বক্সে কনডম রাখা শুরু করেছেন। নয়াদিল্লির আরেক অ্যাপ ক্যাব চালক রমেশের কথায় জল্পনা না সত্যি জানি না, কিন্তু একটা হলেও কনডম রেখে দেওয়া হয়ে
উলঙ্গ, গলার নলিকাটা অবস্থায় রুশ সুন্দরীর লাশ

উলঙ্গ, গলার নলিকাটা অবস্থায় রুশ সুন্দরীর লাশ

গত শুক্রবার রাত থেকে মেয়েকে সমানে ফোন করে যাচ্ছিলেন বাবা-মা। কিন্তু মেয়ে ফোন তোলেনি। উদ্বিগ্ন হয়ে পরদিন ভোরেই তাঁরা ফোন করে বাড়ির মালিককে। মালিক গিয়ে বারবার দরজায় ধাক্কা দিলেও কেউ সাড়া দেয়নি। এরপর তিনি পুলিশ ডেকে দরজা ভাঙতে দেখেন নগ্ন এবং গলা কাটা অবস্থায় মেঝেতে পরে রয়েছেন একদা সৌন্দর্য শিরোপা জেতা একাতেরিনা কে। একসময় মস্কো সুন্দরী হয়েছিলেন তিনি। এছাড়াও একাতেরিনা রাশিয়ান ন্যাশনাল রিসার্চ মেডিক্যাল ইউনিভার্সিটি থেকে ডাক্তারি পাশ করেছেন। তিনি ছিলেন পেশায় ত্বক বিশেষজ্ঞ। রাশিয়ার এক হাসপাতালেই তিনি রোগী দেখতেন। এছাড়াও তিনি ছিলেন যৌনরোগ বিশেষজ্ঞ। একাতেরিনাকে গলা কাটা অবস্থায় পাওয়া গিয়েছে। শুধু তাই নয় তাঁর দেহে একাধিক ধারালো অস্ত্রের কোপ মিলেছে। ধড় থেকে দেহ আলাদা ছিল। এবং তা একটি স্যুটকেসের মধ্যে ভরা ছিল। যদিও কেন তিনি খুন হলেন সেই কারণ এখনও স্পষ্ট নয়। মেয়ের মৃত্যুতে ভেঙে পড়ে
ভারত সফরে গেলে স্ত্রীর প্রতি অন্যায় হতো : তামিম

ভারত সফরে গেলে স্ত্রীর প্রতি অন্যায় হতো : তামিম

বিশ্বকাপ থেকেই ছিলেন অফ ফর্মে। অধিনায়ক হিসেবে গিয়েছিলেন শ্রীলঙ্কা সিরিজে। সেখানে ফর্মতো ফিরে পাননি, বরং দলের সঙ্গে ব্যর্থ হয়েছিলেন তামিম ইকবাল নিজেও। এরপর ঘরের মাঠে আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট ও ত্রিদেশীয় সিরিজ থেকে বিশ্রামে যান তিনি। সেই বিশ্রাম কাটিয়ে ফিরেছিলেন জাতীয় লীগে। জাতীয় দলের প্রত্যাবর্তনটা হওয়ার কথা ছিল নভেম্বরের ভারত সফরে। তবে তা আর সম্ভব হচ্ছে না। সন্তান সম্ভাবা স্ত্রীর পাশে থাকতে ভারত সফরের পুরোটাতেই থাকছেন না তামিম। এই সময়ে স্ত্রীর পাশে থাকতে না পারাটা তার ও পরিবারের প্রতি অন্যায় হতো বলে মনে করেন দেশসেরা ওপেনার।  তামিম বলেন, ‘ভারতে যেতে না পারা অবশ্যই হতাশার। তবে আমার মনে হয়, মানুষের জীবনের এই সময়গুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমরা এমনিতেই অনেকটা সময় পরিবারের দূরে থাকি। পরিবারের সদস্যদের অনেক ত্যাগ স্বীকার করতে হয়। এখন এই সময়টাও যদি স্ত্রীর পাশে থাকতে না পারি, তাহলে
রাতের আঁধারে প্রবাসীর স্ত্রীকে নিয়ে পালালেন আরেক প্রবাসী

রাতের আঁধারে প্রবাসীর স্ত্রীকে নিয়ে পালালেন আরেক প্রবাসী

৯ লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় পরকীয়ার জেরে এক প্রবাসীর স্ত্রীকে নিয়ে পালিয়ে গেছেন আরেক প্রবাসী। ২০ অক্টোবর রাতে ওই উপজেলার কেতকীবাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত রোকনুজ্জামান রোকন ওরফে নেন্দা ওই গ্রামের শমসের আলীর ছেলে। তিনি সাতবছর ধরে রোমানিয়ায় থাকেন। আরেক রোমানিয়া প্রবাসী সাইদুল ইসলাম ওরফে সেল্লু একই গ্রামের বাসিন্দা। শুক্রবার সন্ধ্যায় হাতীবান্ধা থানায় জিডি করেছেন সাইদুল ইসলাম। রোকনুজ্জামান রোকন সম্পর্কে সাইদুলের আত্মীয়। জানা গেছে, রোমান প্রবাসী সাইদুল ইসলামের সঙ্গে ১২ বছর আগে একই উপজেলার সিন্দুর্না ইউপির তমোর চৌপুতী গ্রামের জলিমুদ্দিনের মেয়ে আকলিমার বিয়ে হয়। বিয়ের দুই বছর পর কন্যা সন্তানের মা হন আকলিমা। আত্মীয়তার সুবাদেই সাইদুলের স্ত্রীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক হয় রোকনের। যা পরবর্তীতে প্রেমে রূপ নেয়। এ কারণে আকলিমাকে পেতে পরিকল্পনা করেন রোকন। আকলিমার স্বামী সাইদুল জানান, চার বছর আগ
শাবিতে ভর্তি জালিয়াতিতে বগুড়ার কোচিং সেন্টার

শাবিতে ভর্তি জালিয়াতিতে বগুড়ার কোচিং সেন্টার

প্রধান সংবাদ, সিলেট
ভয়ঙ্কর জালিয়াত চক্রটির কার্যক্রম ফাঁস হয়েছিল ২০১৬ সালে। তখন ধরা পড়েছিলেন জালিয়াত চক্রের দুই সদস্য। এরপর আরো প্রায় তিন বছর পেরিয়ে গেলেও দেখা যাচ্ছে সেই চক্রটির তৎপরতা বন্ধ হয়নি। বগুড়াকেন্দ্রিক চক্রটি এবার আরো একবার ধরা পড়েছে জালিয়াতি করতে গিয়ে। এই চক্রটি শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবি) ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির চেষ্টা করে আসছে। তবে ২০১৬ সালের পর এ বছরও তারা ব্যর্থ হয়েছে। ওই সময় বাইরে থেকে উত্তর সরবরাহকারী চক্রের দুজন ধরা পড়লেও এবার কেন্দ্রের ভেতরে থাকা পাঁচ শিক্ষার্থীকে আটক করা হয়েছে। অবশ্য এই চক্রের মূলহোতারা অধরাই থেকে গেছে। জানা গেছে, বগুড়ার ‘গুগল কোচিং সেন্টার’ নামের একটি বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি কোচিং সেন্টার ডিজিটাল ডিভাইসের মাধ্যমে বিভিন্ন পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস ও ভর্তি পরীক্ষায় বাইরে থেকে উত্তর সরবরাহ করে। জালিয়াত চক্রটি সায়েন্টিফিক ক্যালকুলেটরকে বিশেষ ডিভ
সিলেট পুলিশের তৎপরতা সারাদেশে প্রশংসিত

সিলেট পুলিশের তৎপরতা সারাদেশে প্রশংসিত

শনিবার (২৬ অক্টোবর) ছিলো শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা। এতে সারা দেশের প্রায় ৭০ হাজার শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন। এতো বিশাল সংখ্যক শিক্ষার্থীর সাথে অভিভাবক মিলে প্রায় ২ লক্ষাধিক মানুষের আগমন ঘটে সিলেটে। ফলে গত রাত থেকে শনিবার পর্যন্ত সিলেট হয়ে ওঠেছিল মানুষের শহর। শাবিপ্রবিতে ভর্তি পরীক্ষার্থীদের যাতায়াত বিড়ম্বনা সারা দেশে বেশ সমালোচনার জন্ম দিয়েছিল গতবছর। কিছু অসাধু যানচালকদের কারণে হয়রানীর শিকার হওয়া পরীক্ষার্থীদের সমালোচনায় বিদ্ধ হয়েছিল সিলেটবাসী। গতবছরের বিষয়টি মাথায় রেখে এবার পরীক্ষার্থীদের স্বেচ্ছায় যাতায়াত সুবিধা দিতে এগিয়ে এসেছে বেশ করেকটি সংগঠন। সেই সাথে নড়েচড়ে বসেছে সিলেটের পুলিশ প্রশাসনও। এ অবস্থায় আগত পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সচেতনতা বৃদ্ধি ও অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা এড়ানোর জন্য এ ১৩ টি সচেতনতামূলক নির্দেশনা অনুসরণ করার জন্য সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশে