Day: August 28, 2019

“মনপুরা” সিনেমা ও যশোরের একজন পতিতা দর্শক

“মনপুরা” সিনেমা ও যশোরের একজন পতিতা দর্শক

যশোরের ঐতিহ্যবাহী মণিহার সিনেমা হল ২০০৯ সালের ঘটনা। তখন চাকরির সুবাদে যশোরে থাকতাম। শুক্রবার এলেই সিনেমা দেখার জন্য ছুটে যেতাম যশোরের বিখ্যাত সিনেমা হল মণিহার অথবা তসবিরমহলে। এরই মধ্যে একদিন মণিহারে মুক্তি পেল বহুল আলোচিত সিনেমা "মনপুরা"। বন্ধু ও কলীগ রাসেলকে সাথে নিয়ে ৩টা-৬টার শো দেখতে মণিহারে যাবো। এমন সময় রাসেল জানালো, ওর ডিপার্টমেন্টে একটু কাজ আছে, আমি যেন আগে গিয়ে টিকেট কেটে ওর জন্য অপেক্ষা করি। হলে চলে এলাম। অনেক ঠেলাঠেলির পর ডিসি'র দুটো টিকেট কাটতে পারলাম। এদিকে ছবি শুরু হয়ে যাওয়ার সময় হয়ে গেল, অথচ রাসেলের খবর নেই। কল করলাম, রিসিভ করে আমতা আমতা করে বলল, "দোস্ত, একটু সমস্যা হইছে, আমি আজকে আসতে পারব না, তুই একা একাই দেখ।" খুব বিরক্তিকর পরিস্থিতিতে পরে গেলাম। কাউন্টারে একটি টিকেট ফেরত দিতে গেলে ওরা "বিক্রিত টিকেট ফেরত হয় না বলে" আমাকেই ফেরত দিলো। এদিকে কালোবাজারি ভাবতে পারে মনে কর
সত্য ঘটনা অবলম্বনে নির্মিত ১০টি বাংলাদেশি সিনেমা

সত্য ঘটনা অবলম্বনে নির্মিত ১০টি বাংলাদেশি সিনেমা

বিনোদন
"সিনেমার গরু আকাশে উড়ে" এই প্রবাদটি যেমন সত্যি; তেমনি "সিনেমা আমাদের বাস্তব জীবনেরই প্রতিচ্ছবি" এই কথাটিও মিথ্যে নয়। আসলে কাল্পনিক নাকি বাস্তবিক গল্পের সিনেমা বেশি জনপ্রিয় সেটার উত্তর সম্পূর্ণ আপেক্ষিক ব্যাপার। এবং বিনোদনের জন্য দুটোরই প্রয়োজন আছে। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে সত্য ঘটনা অবলম্বনে নির্মিত সিনেমার চাহিদা খুব বেশি। কারণ মানুষের জীবন সিনেমার চেয়েও বেশি সিনেম্যাটিক। আমাদের দেশে অনেক চমকপ্রদ বাস্তব ঘটনা আছে যেগুলো দিয়ে চাইলে ভাল মানের সিনেমা বানানো সম্ভব। কিন্তু দুঃখের ব্যাপার আমাদের নির্মাতারা সেগুলোর চেয়ে রিমেক করার প্রতি বেশি গুরুত্ব দেয়। যাহোক, চলুন জেনে নিই বাংলাদেশের ১০টি সিনেমা সম্পর্কে যেগুলো সত্য ঘটনা অবলম্বনে নির্মিত হয়েছে। ১. সীমানা পেরিয়ে (১৯৭৭):- ১৯৭০ সাল, উপকূলীয় অঞ্চলে এক ভয়াবহ জলোচ্ছ্বাসে একজন তরুণ ও একজন তরুণী ভাসতে ভাসতে একটি অজানা জনমানবহীন দ্বীপে এসে পৌঁছ
টেবিলেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়লেন ব্যাংক কর্মকর্তা, ভিডিও ভাইরাল

টেবিলেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়লেন ব্যাংক কর্মকর্তা, ভিডিও ভাইরাল

প্রধান সংবাদ, বাংলাদেশ
https://youtu.be/awKpiYz-iAc রাজধানীর উত্তরায় একটি ব্যাংকে নিজের ডেস্কে কর্মরত এক নারী কর্মকর্তার মৃত্যু হয়েছে। ইতোমধ্যেই মৃত্যুর এই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ওই ব্যাংক কর্মকর্তার নাম গহর জাহান। তিনি ব্যাংকটিতে সিনিয়র এক্সিকিউটিভ অফিসার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। সোমবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে প্রাইম ব্যাংকের উত্তরার জসীমউদদীন রোড শাখায় এ ঘটনা ঘটে। ব্যাংক কর্মকর্তা জাহানের মৃত্যুর সেই ভিডিও ইতোমধ্যে ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে দেখা যায়, ওই নারী কর্মকর্তার ডেস্কে একজন নারী গ্রাহক আসেন। তার কাছ থেকে একটি কাগজ নিয়ে দেখছিলেন গহর জাহান। এ সময় পানি খান তিনি। এছাড়া একাধিকবার গালে, নাকে-মুখে, চোখে হাত দিতে দেখা যায়। হঠাৎ করেই টেবিলে মাথা রেখে নুইয়ে পড়েন তিনি। পরে তাকে ধরে চেয়ারে বসানোর চেষ্টা করেন সহকর্মীরা। তখন তিনি নিচে পড়ে যান। এরপর সহকর্মীরা তাকে হাসপাতালের নিয়ে যান।
বার্সার সাইনিং এর খুব কাছাকাছি নেইমার

বার্সার সাইনিং এর খুব কাছাকাছি নেইমার

খেলা, ফুটবল
কদিন আগেই নগদ ১৭৩ মিলিয়ন ইউরোর সঙ্গে গ্যারেথ বেল, কেইলর নাভাস ও রদ্রিগেজের মতো তিন তারকার বিনিময়ে নেইমারকে দিয়ে দিতে পিএসজির কাছে প্রস্তাব পাঠায় রিয়াল মাদ্রিদ। কিন্তু তাতে সাড়া দেয়নি ফ্রেঞ্চ ক্লাবটি। এর আগে একাধিকবার নেইমারের বিষয়ে বার্সেলোনা আগ্রহ প্রকাশ করে ব্যর্থ হলেও এবার পিএসজি নিজে থেকেই বার্সাকে প্রস্তাব দিয়েছে নেইমারকে কিনে নেয়ার। সঙ্গে শর্তও জুড়ে দেয়া হয়েছিল। শর্তে বলা হয়েছে, নেইমারকে পেতে হলে বার্সাকে নগদ ১০০ মিলিয়ন ইউরো গুণতে হবে। সঙ্গে দিয়ে দিতে হবে নেলসন সেমেদো ও ওসমান দেম্বেলেকে। সেমেদো আর দেম্বেলের মোট বাজার দর বর্তমানে ১৫০ থেকে ২০০ মিলিয়ন ইউরো। সঙ্গে যদি বার্সা শর্ত অনুযায়ী আরও ১০০ মিলিয়ন ইউরো দেয় তবে এক নেইমারকে দিয়ে প্রায় ২৫০-৩০০ মিলিয়ন ইউরো তুলে নিতে পারে পিএসজি। তখন অর্থের হিসাবে তাদের লাভের পাল্লাটাই ভারি থাকবে। কিন্তু দেম্বেলেকে নিয়ে কিছুটা বিড়ম্বনায় থাকলেও সে
নগ্ন ছবি পোষ্ট করে সমালোচনার মুখে ক্রিকেটার সারা

নগ্ন ছবি পোষ্ট করে সমালোচনার মুখে ক্রিকেটার সারা

ক্রিকেট, খেলা
ইংল্যান্ড নারী ক্রিকেট দলের উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান সারাহ টেলর।ফের আলোচিত হলে নগ্ন ছবি পোস্ট করে। বছর কয়েক আগে পুরুষদের ক্রিকেটে নাম লিখিয়ে প্রথম আলোচনায় আসেন এই ইংলিশ নারী।ফের নতুন করে আলোচিত হয়েছেন তিনি, অল্প কয়েকদিনের ব্যবধানে ইনস্টাগ্রামে দুটি নগ্ন ছবি পোস্ট করেন। যা নিয়ে উঠেছে সমালোচনার ঝড়। ইউকে ওমেন্স হেলথ ম্যাগাজিন কাজ করে নারী স্বাস্থ্য নিয়ে। আর এর জন্যই নগ্ন তুলেছিলেন সারাহ। নারীরা নিজেদের শরীর নিয়ে যেন গর্বিত হন এটি ছিল তার উদ্দেশ্য। কিন্তু হঠাৎ করে ইন্সটাগ্রামে ছবিটি পোস্ট করে তিনি আলোচনায় আসেন। আর কয়েকদিনের ব্যবধানে আরো একটি নগ্ন ছবি পোস্ট করে সবাইকে অবাক করে দেন তিনি। এ ব্যাপারে সারাহ বলেন, ‘শুরুতে নগ্ন ছবি তোলার জন্য কিছুটা অস্বস্তি বোধ করছিলাম। কিন্তু যখন জানলাম নারীদের স্বাস্থ্য নিয়ে কাজ করছে তারা, তখন তাতে রাজি হলাম।’
ঢালিউড তারকাদের পর্দার নাম বনাম আসল নাম

ঢালিউড তারকাদের পর্দার নাম বনাম আসল নাম

বিনোদন
"ছদ্মনাম" বা "pseudonym" বিশ্ব সাহিত্যের একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ। দেশ-বিদেশের বহু নামিদামি সাহিত্যিক, কবি, ঔপন্যাসিক তাদের মূল নামের পরিবর্তে ছদ্মনামের আশ্রয়ে লেখালেখির প্রয়াস পেয়েছেন। কখনো রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর"ভানু সিংহ" ছদ্মনামে, কখনো প্রমথ চৌধুরী "বীরবল" ছদ্মনামে তাদের লেখালেখি সম্পাদন করেছেন। ছদ্মনাম ব্যবহারের এই প্রচলন সিনেমা-নাটকেও আছে। যেগুলোকে বলা হয় "পর্দার নাম" বা "মঞ্চ নাম"। অভিনয়শিল্পীরা প্রতিভার গুনে তাদের এই নামগুলোকে এমন উচ্চতায় নিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছেন যে সেগুলোর কাছে তাদের পিতামাতার দেওয়া আসল নামগুলোও ধামাচাপা পড়ে গেছে। যেমন, ভারতের কিংবদন্তি অভিনেতা দিলীপ কুমারকে সবাই এক নামে চিনলেও, তার আসল নাম যে মুহাম্মদ ইউসুফ খান, সেটা কিন্তু অনেকেই জানেন না। আজ আমরা আলোচনা করব ঢালিউড তথা বাংলাদেশের ৭০ জন সেলেব্রিটির ব্যাপারে, যারা তাদের উপর আরোপিত নাম দিয়েই আমাদের মনে স্থান করে নিয়ে
নজরদারিতে ‘ঢেলে দেই’ তাহেরি, ব্যবস্থা নেবে পুলিশ

নজরদারিতে ‘ঢেলে দেই’ তাহেরি, ব্যবস্থা নেবে পুলিশ

বাংলাদেশের সার্চ ট্রেন্ড বলছে, চলতি মাসের (আগস্ট) ১৮ থেকে ২৪ তারিখ পর্যন্ত গুগলে ‘ঢেলে দেই’ শব্দ দুটি সার্চ করেছেন প্রায় শতভাগ বাংলাদেশি ইন্টারনেট ব্যবহারকারী। বর্তমানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শব্দ দুটি সবচেয়ে ‘জনপ্রিয়’ ও ‘সমালোচিত’। ইউটিউব, ফেসবুক, টুইটারসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচিত-সমালোচিত এ শব্দ দুটির বক্তা মুফতি গিয়াস উদ্দিন আত-তাহেরী। তার বেশ কয়েকটি ওয়াজে দেখা গেছে, হাতে একটি চায়ের কাপ নিয়ে তাতে চুমুক দেন। এরপর বলেন, ‘কেউ কথা কইয়েন না, একটু চা খাব? খাই একটু? আপনারা খাবেন? ঢেলে দেই? (মুচকি হেসে আবারও) ঢেলে দেই? … ‘ভাই পরিবেশটা সুন্দর না? কোনো হইচই আছে? আমি কি কাউকে গালি দিয়েছি? কারোর বিরুদ্ধে বলতেছি? এরপরও সকালে একদল লোক বলবে, তাহেরী বালা (ভালো) না।’ বক্তব্যের মধ্যে অশ্লীল ভঙ্গিও করেন তিনি। সেই সঙ্গে নাচ-গানসহ আরও বিনোদনমূলক কথাবার্তা। ওয়াজের সময় এভাবে বিনোদন দিয়ে ব