Day: May 2, 2019

ঘূর্ণিঝড়ের আঘাতের আগেই উধাও আবহাওয়া অফিসের ওয়েবসাইট

ঘূর্ণিঝড়ের আঘাতের আগেই উধাও আবহাওয়া অফিসের ওয়েবসাইট

বাংলাদেশ
ঘূর্ণিঝড় ফণীর সবশেষ অবস্থান জানতে আবহাওয়া অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে প্রবেশ করা যাচ্ছে না। এছাড়া হটলাইন ১০৯০ নম্বরে ফোন করেও মানুষ আবহাওয়ার খবরও জানতে পারছেন না। বৃহস্পতিবার বিকালে bmd.gov.bd আবহাওয়া অধিদপ্তরের এই ওয়েবসাইটে ঢোকার চেষ্টা করা হয়। কিন্তু সাইটটিতে ঢোকা যাচ্ছে না। এ বিষয়ে জানতে আবহাওয়া অফিসে ইত্তেফাক থেকে ফোন করা হলে মেটেওরোলজিক্যাল এসিসট্যান্ট আশরাফুল আলম বলেন, একসঙ্গে অনেক হিট হওয়ায় ওয়েবসাইটে এখন প্রবেশ করা যাচ্ছে না। ওয়েবসাইট ঠিক করতে ঘণ্টা চারেক সময় লাগতে পারে। এ দিকে ঘূর্ণিঝড় ফণী বেশ শক্তিশালী হয়ে উঠছে। বাড়ছে তার গতিবেগ। ৪ মে'র আগে বাংলাদেশে আঘাত হানতে পারে ফণী। এতে করে হতে পারে জলোচ্ছ্বাসও। আর এতে উপকূলে নিম্নাঞ্চল ডুবে যেতে পারে। পটুয়াখালীর পায়রা ও বাগেরহাটের মোংলা সমুদ্র বন্দরকে ৭ নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অফিস। এছাড়া চট্টগ্রাম বন্দরকে ৬ নম্বর
শাকিব খানকে নিয়ে মুখোমুখি বুবলী-ববি

শাকিব খানকে নিয়ে মুখোমুখি বুবলী-ববি

শাকিব খান, বুবলী, ববি হক ঈদ মানেই আনন্দ, আর এই ঈদকে রাঙাতে সিনেমাপ্রেমী মানুষ ভিড় করেন সিনেমা হলে। মুক্তি পায় বড় বাজেটের ব্যয় বহুল চলচ্চিত্র। আসন্ন ঈদকে কেন্দ্র করে মুক্তি পাচ্ছে শাকিব খানের দুটি চলচ্চিত্র। ‘নোলক’ ও ‘পাসওয়ার্ড’ শিরোনামে এই দুই ছবি নিয়ে মুখোমুখি হচ্ছেন নায়িকা ববি ও বুবলী। ‘নোলক’ ছবিতে শাকিব খানের বিপরীতে অভিনয় করেছেন নায়িকা ববি, ‘পাসওয়ার্ড’ ছবিতে শাকিব খানের বিপরীতে অভিনয় করেছেন বুবলী। ‘নোলক’ ছবির গল্প, সংলাপ ও চিত্রনাট্য করেছেন ফেরারী ফরহাদ। আসন্ন ঈদে ছবিটি মুক্তি পাবে জানিয়ে তিনি বলেন, “সম্প্রতি ‘নোলক’ ছবিটি প্রদর্শনের জন্য সেন্সর বোর্ডের অনুমতি পেয়েছি। গতকাল হাতে পেয়েছি সেন্সর ছাড়পত্র। এতে ছবিটি মুক্তি দিতে আর কোনো বাধা রইল না। আসন্ন ঈদে ছবিটি মুক্তির দেওয়ার পরিকল্পনা করেছি। এরই মধ্যে আমরা মুক্তির প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছি।” “‘নোলক’ একেবারেই গল্পনির্ভর একটি চল
ঈদের আগেই ৫ কঠিন শর্তে মুক্তি পাচ্ছেন খালেদা জিয়া

ঈদের আগেই ৫ কঠিন শর্তে মুক্তি পাচ্ছেন খালেদা জিয়া

বিএনপি মুখে যতই বলুক সরকারের সঙ্গে কোনো সমঝোতা নয়, কিন্তু নাটকীয়ভাবে ৫ জন সংসদ সদস্যর শপথ গ্রহণ এবং সরকারের পক্ষ থেকে তাদের স্বাগত জানানোর মধ্য দিয়ে খালেদা জিয়ার মুক্তির পথ উম্মোচিত হলো কিনা সেই আলোচনা এখন রাজনীতিতে এসে গেছে। অনেক রাজনৈতিক পর্যবেক্ষক বলছেন, এটার ফলে খালেদা জিয়ার মুক্তির পথ উম্মুক্ত হলো। প্রশ্ন হলো, খালেদা জিয়া মুক্তি পাবেন কীভাবে? বিএনপির একাধিক সূত্র বলছে যে, খালেদা জিয়া এবং তারেক রহমান ২ জনই ভিন্ন ভিন্নভাবে সরকারের সঙ্গে দরকষাকষি করছেন। খালেদা জিয়ার ছোটভাই শামীম ইস্কান্দার সরকারের একাধিক প্রভাবশালী মহলের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন। এই যোগাযোগ সফল হলেই খালেদা জিয়া মুক্তি পাবেন। এদিকে সরকারের একাধিক সূত্র বলছে, খালেদা জিয়ার মুক্তির আগে বিএনপিকে ঢেলে সাজাতে হবে। সেই লক্ষ্যে সরকারের পক্ষ থেকে ৫টি সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। প্রস্তাবগুলো হলো- জাতির পিতাকে বিএন
সরাসরি দেখুন ঘূর্ণিঝড় ফণীর অবস্থান

সরাসরি দেখুন ঘূর্ণিঝড় ফণীর অবস্থান

প্রধান সংবাদ
সরাসরি দেখুন ঘূর্ণিঝড় ফণীর অবস্থা। অবস্থান দেখতে এখানে ক্লিক করুন https://www.sylhetmail24.com/ঘূর্ণিঝড়-ফণী-ছাত্রলীগ/1861/ https://www.sylhetmail24.com/ফণীর-কবল-থেকে-বাঁচতে-তওবা/1864/ https://www.sylhetmail24.com/ঘুর্ণিঝড়-ফণী-যে-কোনো-প্রয়/1858/ https://www.sylhetmail24.com/ঘূর্ণিঝড়-ফণী-মহাবিপদ-সং/1855/ https://www.sylhetmail24.com/ঘূর্ণিঝড়-ফণী-কক্সবাজারে/1850/ https://www.sylhetmail24.com/অন্ধ্রপ্রদেশে-প্রবল-শক্ত/1847/
‘ফণীর কবল থেকে বাঁচতে তওবা-ইস্তেগফার করুন’

‘ফণীর কবল থেকে বাঁচতে তওবা-ইস্তেগফার করুন’

ঘূর্ণিঝড় ‘ফণী’র কবল থেকে রক্ষা পেতে আল্লাহর কাছে বেশি বেশি তওবা-ইস্তেগফার করতে মুসলমানদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ইসলামী আন্দোলনের আমির ও চরমোনাই পীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম এবং দলের মহাসচিব মাওলানা ইউনুছ আহমাদ। বৃহস্পতিবার এক যৌথবিবৃতিতে তারা বেশি বেশি দোয়ার করারও আহ্বান জানান। বিবৃতিতে বলা হয়, ‘জলে ও স্থলে যত বিপর্যয় তা আমাদের হাতের কামাই। তাই তওবা করে ইসলামে ফিরে আসতে হবে। কুরআন-সুন্নাহর বিরুদ্ধে অবস্থান নিলে আরও ভয়াবহ বিপর্যয়ের জন্য আমাদের অপেক্ষা করতে হবে।’ বিবৃতিতে দুর্যোগ মোকাবিলায় সরকারের পক্ষ থেকে সার্বিক ব্যবস্থা গ্রহণেরও আহ্বান জানান মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম ও মাওলানা ইউনুছ আহমাদ।
ঘূর্ণিঝড় ‘ফণী’ : ছাত্রলীগকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

ঘূর্ণিঝড় ‘ফণী’ : ছাত্রলীগকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

প্রধান সংবাদ, বাংলাদেশ
বাংলাদেশ থেকে মাত্র ৭০০ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে প্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড় ফণী। ঘণ্টায় ১৮০ কিলোমিটার গতিবেগে ধেয়ে আসছে বলে জানিয়েছেন বলে জানিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান। ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে যে কোনো দুর্যোগ মোকাবিলায় উপকূলীয় এলাকায় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পাশাপাশি ছাত্রলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদেরও প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে বিভিন্ন দুর্যোগে গণমাধ্যমের করণীয় বিষয়ে বাংলাদেশ ক্লাইমেট চেঞ্জ জার্নালিস্ট ফোরামের (বিসিজেএফ) নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় একথা জানান দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান। তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় আসন্ন দুর্যোগ মোকাবিলায় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও ছাত্রলীগকে ক্ষতি কমিয়ে আনার নির্দেশনা দে
ঘুর্ণিঝড় ফণী: যে কোনো প্রয়োজনে ০২৯৫৪৬০৭২

ঘুর্ণিঝড় ফণী: যে কোনো প্রয়োজনে ০২৯৫৪৬০৭২

অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় ফণী’র মোকাবিলায় যে কোনো প্রয়োজনে কন্ট্রোল রুম খুলেছে নৌপরিবহন মন্ত্রনালয়। সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের ৮০১/ক নম্বর কক্ষে খোলা হয়েছে এই কন্ট্রোল রুম। ফণী সংক্রান্ত জরুরী  তথ্য ও নির্দেশনা আদান-প্রদানের জন্য এই রুমের টেলিফোন নম্বর ০২৯৫৪৬০৭২ সার্বক্ষণিক খোলা রাখা আছে। বৃহস্পতিবার নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা এক আদেশে এ তথ্য জানানো হয়েছে। মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে, ঘূর্ণিঝড় ফণীকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়। এ কারণে একটি কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে এবং জরুরী সব ধরনের তথ্য ও নির্দেশনা আদান-প্রদানের ওই রুমের টেলিফোন নম্বরটি খোলা রাখা হচ্ছে। সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বৃহস্পতিবার দুপুর নাগাদ বাংলাদেশ উপকূল থেকে ৭০০ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছিল ঘূর্ণিঝড় ফণী। ভারতের উড়িষ্যা ও পশ্চিমবঙ্গ উপকূলে আঘাত হেনে আগামীকাল শুক্রবার  বিকেল থেকে সন্ধ্য
ঘূর্ণিঝড় ফণী: ‘মহাবিপদ সংকেতের সামনে বাংলাদেশ’

ঘূর্ণিঝড় ফণী: ‘মহাবিপদ সংকেতের সামনে বাংলাদেশ’

প্রধান সংবাদ, বাংলাদেশ
দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়েল সচিব মো. শাহ কামাল বলেছেন, ‘প্রবল ঘূর্ণিঝড় ফণী ঘণ্টায় ২৭ কিলোমিটার গতিতে ধেয়ে আসছে। এজন্য ইতোমধ্যে আমরা মোংলা এবং পায়রা বন্দরে বিশেষ করে বরিশাল ও খুলনা বিভাগের অর্ধেক এলাকায় ৭ নম্বর বিপদ সংকেত জারি করেছি। এরপরের সংকেতটি আসবে মহাবিপদ সংকেত। আমরা এখন মহাবিপদ সংকেতের সামনে দাঁড়িয়ে আছি।’ বৃহস্পতিবার দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এসব কথা বলেন তিনি। ক্লাইমেটচেঞ্জ জার্নালিস্ট ফোরাম এ সভার আয়োজন করে। এ সময় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমানও উপস্থিত ছিলেন। শাহ কামাল বলেন, ‘সংকেতের স্তরগুলো হচ্ছে ১ থেকে ৪ পর্যন্ত হুঁশিয়ারি সংকেত। ৫, ৬ ও ৭ হচ্ছে বিপদ সংকেত। বিপদ সংকেতগুলো বাংলাদেশে হয় বন্দরকেন্দ্রিক। ৮, ৯ ও ১০ নম্বর হচ্ছে মহাবিপদ সংকেত। আমরা এখন মহাবিপদ সংকেতের
ঘূর্ণিঝড় ফণী: কক্সবাজারে মাইকিং করে সরিয়ে আনা হচ্ছে পর্যটকদের

ঘূর্ণিঝড় ফণী: কক্সবাজারে মাইকিং করে সরিয়ে আনা হচ্ছে পর্যটকদের

ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে সাগর উত্তাল হয়ে ওঠায় কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের পানিতে পর্যটকদের না নামতে সতর্ক করা হচ্ছে। যেসব পর্যটক সতর্কতা উপেক্ষা করে সাগরে গোসল করতে নামছেন তাদের মাইকিং করে সাগর থেকে তুলে আনা হয়েছে। কক্সবাজার ট্যুরিস্ট পুলিশের পুলিশ সুপার জিল্লুহ রহমান জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে সাগর উত্তাল রয়েছে। জোয়ারের পানি স্বাভাবিকের চেয়ে বেড়ে গেছে। ফলে পর্যটকদের সাগরে গোসল করতে নিষেধ করা হচ্ছে। যেসব পর্যটক সাগরে গোসল করতে নামছেন সন্ধ্যার আগে তাদের মাইকিং করে নিরাপদে সরিয়ে নিচ্ছে ট্যুরিস্ট পুলিশ। আবহাওয়ার বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কক্সবাজার সমুদ্র বন্দরকে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দরকে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত নামিয়ে তার পরিবর্তে ৬ নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। আবহাওয়ার বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ঘূর
অন্ধ্রপ্রদেশে প্রবল শক্তি নিয়ে ঘূর্ণিঝড় ফণীর আঘাত

অন্ধ্রপ্রদেশে প্রবল শক্তি নিয়ে ঘূর্ণিঝড় ফণীর আঘাত

প্রধান সংবাদ, বিশ্ব
প্রবল শক্তি সঞ্চয় করে অগ্রসর হতে থাকা ঘূর্ণিঝড় ফণীর কারণে ভারতের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় অন্ধ্রপ্রদেশ ও ওড়িশায় ভারী বর্ষণ শুরু হয়েছে। ভারতীয় দৈনি কইন্ডিয়া ট্যুডে এক প্রতিবেদনে বলছে, অন্ধ্রপ্রদেশের বিশাখাপত্তনমে ৯০ থেকে ১১০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ো হাওয়ার সঙ্গে তীব্র বৃষ্টি শুরু হয়েছে।  দেশটির অপর সংবাদমাধ্যম নিউজ১৮ বলছে, ঘূর্ণিঝড় ফণীর কারণে তীব্র হাওয়া এবং বৃষ্টির জেরে অন্ধ্রপ্রদেশের রাস্তার ধারে বৈদ্যুতিক পোল ও গাছ-পালা উপড়ে পড়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে স্থানীয় প্রশাসন । ঝড় ও বৃষ্টির কারণে বিপাকে পড়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। প্রাণ বাঁচাতে নিরাপদ স্থানের সন্ধানে বাড়ি-ঘর ছাড়ছেন তারা। অন্ধ্রপ্রদেশের কাকদ্বীপের উপকূলীয় থানা এলাকায় উচ্চ সতর্কতা জারি করা হয়েছে। উপকূলীয় এলাকায় কাঁচা বাড়ির বাসিন্দাদের ইতোমধ্যে আশ্রয় শিবিরে সরিয়ে আনার প্রস্তুতি শুরু হয়েছে।