লাইফস্টাইল

পুরুষের অন্ডকোষের দাম ৫০ লাখ টাকা

পুরুষের অন্ডকোষের দাম ৫০ লাখ টাকা

আপনি কি জানেন ?? আপনি কি জানেন যে আপনার একটি বিচির দাম ৩০ হাজার ডলার?? আন্তর্জাতিক একটি সংস্হার মতে মানব অঙ্গগুলির আইনি প্রতিস্থাপনের অধীনে অন্ডকোষ প্রতিস্থাপনের ব্যয় ৬০ হাজার ডলার, সংক্ষেপে, আপনার উভয় পায়ের মাঝে ৬০ হাজার ডলার বা প্রায় ৫১ লাখ টাকা ঝুলছে, এর অর্থ যখন আপনি নাড়াচ্ছেন, চুল্কাচ্ছেন বা ঘষছেন এর অর্থ আপনি অর্ধ কোটি টাকার সাথে খেলছেন। অতএব , আজ থেকে নিজেকে গরিব নয় লাখপতি হিসেবে বিবেচনা করুন।
প্রেম-ভালোবাসা এক ধরনের নেশা

প্রেম-ভালোবাসা এক ধরনের নেশা

কেউ কেউ ভালোবাসার খোঁজে হয়রান, কেউবা ভালোবাসা হারিয়ে হচ্ছে উন্মাদ। আবার কেউ হয়ত প্রেমে পড়ে  সব কিছু ভুলে গিয়ে ভাবতে বসেছে এটাই জীবন, এতেই নিহিত সকল সুখ! ভালোবাসা এমন এক জিনিস যা পাওয়ার জন্য সবাই ব্যাকুল হয়ে থাকে। কত কবি সাহিত্যিক হাজার হাজার পাতা লিখে ফেলেলেন শুধু এই ভালোবাসাকে উপজীব্য করে। প্রেম, সে তো বিশ্বময় ছড়িয়ে আছে। পৃথিবীতে খুব কম মানুষ খুঁজে পাওয়া যাবে যাদের জীবনে প্রেম আসেনি। আর এ কারণে জীবনে একবারের মতো হলেও প্রেমে পড়েনি, এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া আসলেই মুশকিল। প্রেমে পড়ার অসাধারণ এই অনুভূতিটা সব মানুষই পেতে চায়। সায়েন্স বা বিজ্ঞানের মতে ভালোবাসা বা সব ধরনের মানবিক ইমোশন আমাদের মস্তিষ্কের কিছু রিয়াকশনের ফল।ভালোবাসার উপর কত কোটি কবিতা, গল্প, উপন্যাস, সিনেমা বা নাটক তৈরী হয়েছে তার কোন ইয়াত্তা নাই। এসব জায়গায় ভালোবাসাকে সবাই যার যার নিজের মত করে বর্ণনা করেছেন। কিন্ত এই ক
জেনে নিন মানুষের দেহ ও মন সম্পর্কে আজব কিছু তথ্য

জেনে নিন মানুষের দেহ ও মন সম্পর্কে আজব কিছু তথ্য

সৃষ্টির শ্রেষ্ঠ জীব মানুষ। কতটুকও জানেন আপনি আপানার দেহ সম্পর্কে, তবে এবার আপনাদের জানবো মানব দেহের আজব কিছু নতুন তথ্য। এমন অনেক বিষয় রয়েছে যা আপনার সাথে সম্পর্কিত কিন্তু আপনি নিজেই জানেন না। নিচে বিস্তারিত তুলে ধরা হলঃ ১) আপনার মতো চেহারার প্রায় ৬ জন মানুষ রয়েছে পৃথিবীতে এবং আপনার পুরো জীবনে প্রায় ৯% সম্ভাবনা রয়েছে আপনার চেহারার কারো সাথে দেখা হওয়ার। ২) আপনি যদি দিনের প্রায় ১১ ঘণ্টা বসে কাটান তাহলে আপনার আগামী ৩ বছরের মধ্যে মৃত্যু হওয়ার সম্ভাবনা প্রায় ৫০%। ৩) বালিশ ছাড়া ঘুমানোর অভ্যাস আপনার ঘাড় ও গলার ব্যথা থেকে মুক্তি দিতে পারে। এবং এর পাশাপাশি মেরুদণ্ড সুস্থ রাখে। ৪) একজন মানুষের উচ্চতা নির্ধারিত হয় তার বাবা ও তার ওজন নির্ধারিত হয় মায়ের মাধ্যমে। ৫) মানুষের মস্তিষ্ক ৩ টি জিনিসের দিক থেকে নজর ফেরাতে পারে না, তা চোখের নজর হোক বা মনের নজর হোক। আর সে ৩ টি জ
টয়লেটের সামনে সেলফি তুললেই মিলবে টাকা

টয়লেটের সামনে সেলফি তুললেই মিলবে টাকা

অক্ষয় কুমার অভিনীত জনপ্রিয় সিনেমা টয়লেট- এক প্রেম কথা। ২০১৭ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত এই সিনেমায় দেখানো হয়েছিল উত্তর প্রদেশের নারীদের খোলা জায়গায় শৌচকর্ম করার কদর্য দৃশ্য। সেখানে সিনেমার নায়িকা সমাজের এই কুৎসিত প্রথার বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছিল। তবে এবার সিনেমা নয় বাস্তবে ভারতের মধ্য প্রদেশের সরকার খোলা জায়গায় শৌচকর্ম না করে টয়লেট ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দিতে এক অভিনব কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। এই কর্মসূচির নাম ‘মুখ্যমন্ত্রী কন্যা বিবাহ/নিকা যোজনা’। এটি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির স্বচ্ছ ভারত অভিযানের আওতায় গৃহীত কর্মসূচি। কর্মসূচী অনুযায়ী, মধ্য প্রদেশের সামাজিকভাবে অনগ্রসর সম্প্রদায়ের কোনো ছেলেকে বিয়ের আগে বাড়িতে টয়লেট তৈরি করতে হবে। শুধু তাই নয়, টয়লেটের সামনে দাঁড়িয়ে সেলফি তুলে সরকারি দপ্তরে জমা দিতে হবে। এজন্য নববধূ পাবে নগদ ৫১ হাজার রুপি। এই কর্মসূচি অনেকের কাছে হাস্যকর
বিশেষ সময়ে নারীর যে শব্দ পুরুষকে পাগল করে

বিশেষ সময়ে নারীর যে শব্দ পুরুষকে পাগল করে

লাইফস্টাইল
সুখী দাম্পত্য জীবনের জন্য যৌন মিলন অপরিহার্য একটি বিষয়। যৌন মিলনে যে যুগল বেশি সুখী তাদের বাস্তব জীবনটা হয়ে অনেক বেশি রোমান্টিক। বিভিন্ন গুণী কবি সাহিত্যকগণ যুগ যুগ ধরে এমনটা বলে গেছেন। একে অপরকে জানতে প্রেমিক যুগলের মধ্যে যৌন মিলন বেশ জরুরী। এই ক্ষেত্রে প্রিয় সঙ্গী যখন তার সঙ্গিনীকে ছুতে চাই।  এই অনুভূতিটায় অন্য রকম হয়। একজন মহিলা ও একজন পুরুষ যখন যৌন মিলনে আবদ্ধ হন তখন বিভিন্ন ধরনের শব্দ করেন। এ শব্দ একে অপরের মধ্যে আরো বেশি আবেগের সৃষ্টি করে। সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখা গিয়েছে পুরুষরা যে শব্দ করেন তা মহিলাদের কাছে ‘কর্কশ’ মনে হয়। মহিলারা পুরুষের এমন শব্দে খুব বেশি আলোড়িত হন না। তবে মহিলাদের মুখের শব্দে পুরুষদের পাগল করে তোলে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একজন মনোবিজ্ঞানী সুশান হাগ বলেছেন, সেক্সুয়াল সাউন্ড হচ্ছে এমন শব্দ যার জোর আওয়াজ হয় না, নিঃশ্বাসের সাথ
ভর্তার রাজ্য জাহাঙ্গীরনগর

ভর্তার রাজ্য জাহাঙ্গীরনগর

সকালের আলো ফুটতে না ফুটতেই হাঁকডাকে জমজমাট হয়ে ওঠে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলার হরেক রকমের ভর্তার দোকান। ইলিশ মাছ ভর্তা, বাদাম ভর্তা, শিম ভর্তা, রুই মাছ ভর্তা, মরিচ ভর্তা, চিকেন ভর্তা, শুঁটকি ভর্তা, কালো জিরা ভর্তা, আলু ভর্তা, পেঁপে ভর্তা, ডাল ভর্তা, ধনে পাতা ভর্তা, সরিষা ভর্তাসহ আরও অনেক ধরনের টাটকা ভর্তা নিয়ে বসে থাকেন দোকানিরা। বেলা বাড়ার সাথে সাথে বটতলা প্রাঙ্গনে জমতে শুরু করে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষাথীদের ভীড়। শুধু বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষাথীরাই না, বরং দূর-দুরান্ত থেকে ছুটে আসেন অনেক ভর্তা প্রেমিকেরা। বটতলা প্রাঙ্গনজুড়ে রয়েছে প্রায় ২৫টিরও বেশি খাবারের দোকান। প্রতিটি দোকানে প্রতিদিন তৈরী হয় প্রায় ৩০ ধরনের খাবার, ছুটির দিনে সংখ্যায় গিয়ে দাড়ায় ৪০। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থী নাজনীন উম্মি বলেন, আমি যেহেতু হলে থাকি সেহেতু আমা
একদিন বলল, আমাকেও ওইভাবে আদর করবে

একদিন বলল, আমাকেও ওইভাবে আদর করবে

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক গৃহবধূ জানিয়েছেন নিজের নির্যাতনের ভয়াবহ করুন কাহিনী। "আপু, সালাম নেবেন। প্লিজ আমার নাম পরিচয় প্রকাশ করবেন না। আমি লজ্জায় মারা যাব। আমি আপনাকে ফেইসবুক এর মাধ্যমে আরো আগে থেকেই চিনি। কিন্তু কোনদিনও ভাবিনি, এইভাবে আপনাকে কখনো চিঠি লিখতে হবে। আমার বয়স ২৭, বিয়ে হয়েছে মাত্র ৯ মাস হলো। বাবা না থাকায় বিয়ে একটু দেরিতে হয়েছে। আমার স্বামীর বয়স ৩৩ এবং সে একজন মানসিক রোগী। তার কারণে আমি আজ শারীরিক ভাবে বিকলাঙ্গ। আমার কথাগুলো কাউকে বলা দরকার, না হলে পাগল হয়ে যাব। আমার বাবা নেই। একটা ছোট ভাই আছে। ছোটবেলা থেকেই আমি খুব লাজুক। নিজের প্রয়োজনের জিনিসগুলোও কখনো লজ্জায় মায়ের কাছে চাইতাম না, মা নিজেই বুঝে নিতেন। আমার মা' ই আমার বিয়ের যাবতীয় আয়োজন করলেন। আমার এরেঞ্জ ম্যারেজ। ছেলেকে আমার পছন্দই হয়েছিল। বিয়ের সময় কিছুই বুঝি নাই। কিন্তু বিয়ের পর ধীরে ধীরে সমস্যা গুলো বুঝতে শুরু কর
যেসব নারীরা বিয়ে করে না, তারাই সবচেয়ে সুখী!

যেসব নারীরা বিয়ে করে না, তারাই সবচেয়ে সুখী!

সিলেট মেইল ডেস্ক : পল ডোলান লন্ডন স্কুল অব ইকোনমিকসের আচরণ বিজ্ঞান বিভাগের একজন অধ্যাপক বলেছেন, পৃথিবীর মানুষদের মধ্যে যেসব নারীর স্বামী-সন্তান নেই তারাই সবচেয়ে বেশি সুখী। শুধু তা-ই নয়, সন্তান পালনকারী ও বিবাহিত নারীদের চেয়ে অবিবাহিত বা কুমারি নারীরা বেশি  দিন বাঁচে। খবর দ্য গার্ডিয়ানের। শনিবার ‘হে ফেস্টিভ্যালে’ বক্তব্য দিতে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, মানুষের সফলতা সন্তান লালন-পালন ও বিয়ের সঙ্গে সম্পর্ক নেই। বিবাহিত মানুষরা শুধু তখনই সুখী যখন তাদের সঙ্গীরা ঘরে থাকে। কিন্তু যখন সঙ্গী কাছে না থাকে তখন তার জীবনটা দুর্বিসহ। তিনি বলেন, বিবাহের দ্বারা শুধু পুরুষরাই উপকৃত হচ্ছে। কেননা, এর দ্বারা পুরুষ শান্ত ও স্থির থাকে। এতে তার ঝুঁকি কম। কর্মক্ষেত্রে তার আয়ও বেশি। এর ফলে তারা একটু বেশি দিন বাঁচে।  অন্যদিকে, বিবাহিত নারীকে তার সঙ্গীকে বিভিন্নভাবে সেবা বা সঙ্গ দি
মিলনে লিপ্ত হয়নি এমন পুরুষদের যা জানা প্রয়োজন

মিলনে লিপ্ত হয়নি এমন পুরুষদের যা জানা প্রয়োজন

সিলেট মেইল ডেস্ক : যেসব পুরুষরা কোনো নারীর সঙ্গে আগে কখনো ঘনিষ্ঠ হননি তাদের অবশ্যই কিছু টিপস দরকার। কয়েকটি টিপস আছে যা স্ত্রীর সঙ্গে প্রথম রাত কাটানোর সময় তাকে শান্ত রাখতে সাহায্য করবে।   ব্যক্তিটিকে আরো ভালভাবে জানা এবং সম্মতি নেয়া আপনি যখন যৌন মিলনের কথা চিন্তা করছেন, তখন আপনার সঙ্গীর চাওয়া ও সম্মতি জানা প্রয়োজন। সে হয়ত বিয়ের প্রথম রাতেই যৌন মিলনে জন্য প্রস্তুত নাও হতে পারে। মনে রাখবেন, দুইজনেরই সম্মতি না থাকলে যৌন মিলন উপভোগ করা সম্ভব না। পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা আমরা জানি যে বেশিরভাগ পুরুষই স্বাস্থ্য সচেতন না। ফিলিপস ইন্ডিয়া পরিচালিত একটি জরিপ অনুসারে, একজন নারী সুদর্শন পুরুষের থেকে পরিপাটি পুরুষ বেশি পছন্দ করে। সুতরাং নিজের স্বাস্থ্য ও পরিচ্ছন্নতার দিকে নজর রাখুন। দ্রুত ইজাকুলেশন হতে পারে হ্যাঁ, আমরা অনুমান করতে পারি যে একজন মানুষের জন্য এটি কতটা বিব্রতকর হতে পা
ম্যাডামের সঙ্গে সহবাস করলেই পরীক্ষায় পাশ

ম্যাডামের সঙ্গে সহবাস করলেই পরীক্ষায় পাশ

সিলেট মেইল ডেস্ক : চল্লিশোর্ধ স্কুল শিক্ষিকা ছাত্রদের পাস করিয়ে দিতে একটি মাত্র শর্ত দিতেন। আর সেটি হল, তার বাড়িতে শয্যা সঙ্গী হতে হবে।এমনই এক অদ্ভুত শিক্ষিকা খুজে পাওয়া গেল। নাম তার ইওকাসতা। শুধু পাস করানোর জন্যই নয়, ভালো ফলাফলের লোভ দেখিয়েও ছাত্রদের বাড়িতে ডেকে নিতেন ওই শিক্ষিকা। এমনকি তাতে রাজি না হলে ফেল করিয়ে দেয়ার ভয়ও দেখাতেন ইওকাসতা। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দি ডেইলি মেইলের প্রতিবেদনে বলা হয়, সম্প্রতি কলম্বিয়ার মেডেলিনের ওই স্কুল শিক্ষিকাকে যৌন হয়রানির অভিযোগে ৪০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। অনেকদিন ধরে অপকর্ম চালিয়ে গেলেও শিক্ষিকার এই অনাচার প্রথম ধরা পড়ে এক ছাত্রের মাধ্যমে। ছাত্রদের ইওকাসতা যেসব ছবি পাঠাতেন তা অবশ্য বর্ণনার যোগ্য নয়। ঘটনা প্রকাশ হয়ে গেলে ওই শিক্ষিকার স্বামী তাকে ডিভোর্স দিয়ে দিয়েছেন।