সাকিবের ব্যাপারে খুব বেশি কিছু করণীয় নেই : প্রধানমন্ত্রী

ম্যাচ ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পাওয়ার পর তা গোপন করার অভিযোগে বিশ্ব সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের বিরুদ্ধে আইসিসির তদন্ত নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘সাকিবের উচিত ছিল আইসিসিকে জানানো। সে জানায়নি। এখানেই ভুল হয়েছে। এখানে আসলে খুব বেশি কিছু করণীয় থাকে না। তবুও আমরা চেষ্টা করব।’ 

যে কোনো পরিস্থিতিতে বাংলাদেশে ক্রিকেট বোর্ড-বিসিবি সাকিবের পাশে থাকবে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।   

মঙ্গলবার বিকেলে গণভবনে সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি ।

দুই বছর আগে একটি আন্তর্জাতিক ম্যাচের আগে জুয়াড়ির কাছ থেকে অনৈতিক প্রস্তাব পেয়েছিলেন সাকিব আল হাসান। সেই প্রস্তাব তিনি প্রত্যাখ্যান করলেও নিয়মানুযায়ী আইসিসির দুর্নীতি দমন ইউনিটকে (আকসু) জানাননি। এ কারণেই আইসিসি তাকে শাস্তি দিতে যাচ্ছে।

আরো পড়ুন :   ট্যাক্স কার্ড পাচ্ছেন ক্রিকেটার মাশরাফি, তামিম ও সাকিব

আইসিসির আচরণবিধি অনুযায়ী এই ধরনের অপরাধের জন্য সাকিব ১৮ মাসের জন্য নিষিদ্ধ হতে পারেন। যেটা বাংলাদেশের ক্রিকেটের জন্য বড় একটা ধাক্কা।

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ‘আমাদের দেশে তো বটেই, সারাবিশ্বে ক্রিকেট প্লেয়ার হিসেবে সাকিবের আলাদা একটা অবস্থান আছে। একটা ভুল সে করেছে এটা ঠিক এবং সেটা সে বুঝতেও পেরেছে। তারপরও আমরা, বিশেষ করে বিসিবি বলেছে তার পাশে থাকবে। তবে খুব বেশি কিছু যে করণীয় আছে সেটা কিন্তু না।’

সম্প্রতি ক্রিকেটারদের ধর্মঘটের বিষয়ে অপর এক প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, ‘তারা (ক্রিকেটার) বিসিবিকে বিষয়টি জানাতে পারত। কিন্তু সেটি না করে হটাৎ ধর্মঘট ডাকল। আমি কখনো দেখিনি ক্রিকেটাররা এভাবে ধর্মঘট ডাকে। যাই হোক, তাদের সাথে আলোচনা হয়েছে। ওই চ্যাপ্টার মিটমাট হয়ে গেছে।’

আরো পড়ুন :   বুলবুল আতঙ্কের মধ্যে জন্ম হলো ‘বুলবুলি’র

তিনি আরো বলেন, ‘আমরা যেভাবে খেলোযাড়দের সমর্থন দেই, পৃথিবীর খুব কম দেশই আছে সেভাবে সমর্থন দেয়। আমরা আস্তে আস্তে তাদের গড়ে তুলেছি। সেভাবেই বাংলাদেশ ক্রিকেট গড়ে উঠেছে।আমরা ভালো করছি। খেলার মানও বৃদ্ধি পাচ্ছে।’