যে ১৬টি হিন্দি-উর্দু গানের মাধ্যমে আমরা আল্লাহর সাথে শিরক করছি

প্রথমেই বলে রাখি, আমি নিজেই প্রচুর গান শুনি এবং সিনেমা আমার জীবনের একটি অংশ। তাই নীতিগতভাবে আমি গানবাজনা হারাম কি হালাল এসব নিয়ে কাউকে কিছু বলার এখতিয়ার রাখি না। শুধু এতটুকু জানি মহান আল্লাহ পাক তার সাথে কাউকে শরিক করা বাদে বাকি যেকোন গুণাহ ইচ্ছে করলে ক্ষমা করে দিতে পারেন। তার মানে একজন মুসলমানের সর্বপ্রথম কর্তব্য হলো শিরক করা থেকে বেঁচে থাকা। তবে দুঃখের ব্যাপার আমরা প্রায়ই বুঝে বা না বুঝে বিভিন্নভাবে শিরকের সাথে জড়িয়ে পড়ছি। আর এর অন্যতম হাতিয়ার হচ্ছে কিছু হিন্দি গান। যেগুলোতে সুফি মতাদর্শ বা ভিন্ন ধর্মাবলম্বী মতবাদের দোহাই দিয়ে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে আল্লাহর সাথে শিরক করা হচ্ছে। হিন্দি গানগুলোতে রব, খোদা, সেজদা, দোয়া, ঈমান বা আল্লাহর নাম থাকলেই অল্পস্বল্প হিন্দি জানা লোক সেগুলোকে ভাল বা আধ্যাত্মিক গান বলে মনে করে। অথচ সেগুলোর মধ্যে কিছু গান কিন্তু হতে পারে আপনার শিরক করার মত অমার্জনীয় পাপের কারণ। তা আপনি বুঝেই গান বা শোনেন, কিংবা না বুঝেই গান বা শোনেন। আজ আলোচনা করবো এমনই ১৫টি হিন্দি-উর্দু গান নিয়ে যেগুলো মুসলমানদের শিরকের কারণ। তবে শুরু করা যাক।

১. তুঝমে রাব দিখতা হ্যাঃ- এই গানটি হচ্ছে আদিত্য চোপড়া পরিচালিত শাহরুখ খান ও আনুশকা শর্মা অভিনীত ২০০৮ সালের সিনেমা Rab Ne Bana Di Jodi এর। গানটির কথা হচ্ছে…
“তুঝমে রাব দিখতা হ্যা, ইয়ারা ম্যায় ক্যায়া কারু
সাজদে শার ঝুকতা হ্যা, ইয়ারা ম্যায় ক্যায়া কারু”

যার অর্থ,
“তোমার মাঝে খোদাকে দেখা যায়, বন্ধু আমি কি করি
সেজদা করতে মাথা ঝুকে যায়, বন্ধু আমি কি করি”

বলার অপেক্ষা রাখে না গানটিতে কিভাবে আল্লাহ পাকের সাথে সামান্য মানবীকে শরিক করা হয়েছে। দুঃখের ব্যাপার এই গানের রচয়িতা সেলিম-সুলাইমান দুজনই মুসলমান।

২. খুদা জানেঃ- এই গানটি সিদ্ধার্থ আনন্দ পরিচালিত রনবীর কাপুর ও দীপিকা পাড়ুকোন অভিনীত ২০০৮ সালের সিনেমা Bachna Ae Haseeno এর। গানটির কথা এরকম…
“সাজদে মে ইউ হি ঝুকতা হু, তুমপে হি আকে রুকতা হু
ক্যায়া ইয়ে সাবকো হোতা হ্যা ?
হামকো ক্যায়া লেনা হ্যা সাব সে, তুমসে হি সাব বাতে আবসে
বান গায়ে হো তুম মেরি দুয়া।
খুদা জানে কে ম্যায় ফিদা হু, খুদা জানে ম্যায় মিট গায়া
খুদা জানে ইয়ে কিউ হুয়া হ্যা, কে বান গায়ে হো তুম মেরে খুদা”

যার অর্থ,
“সেজদাতে এমনিতেই ঝুঁকে পড়ি, তোমার কাছে এসেই থামি
সবারই কি এমনটা হয় ?
আমার সবার সাথে কি আসে যায়, এখন সবকিছু তোমাকে নিয়েই
তুমি আমার দোয়া হয়ে গেছো
খোদা জানে আমি মোহিত হয়ে গেছি, খোদা জানে আমি হারিয়ে গেছি
খোদা জানে এমনটা কেন হয়েছে, যে তুমিই আমার খোদা হয়ে গেছো”

সুতরাং বোঝাই যাচ্ছে এটাও চরম শিরকমূলক একটি গান। প্রিয়তমা যতই সুন্দরী ও ভালোবাসার পাত্রী হোক, তাকে সৃষ্টিকর্তার সাথে তুলনা করা নিকৃষ্টতম পাপের কাজ।

৩. আযা মাহিয়াঃ- এই গানটি খালিদ মোহাম্মদ পরিচালিত কারিশমা কাপুর ও হৃত্বিক রোশন অভিনীত ২০০০ সালের সিনেমা Fiza এর। গানের শুরুতে বলা হয়…
“আ ধূপ মালূ ম্যায় তেরে হাথো মে
আ সাজদা কারু ম্যায় তেরে হাথো মে”

যার অর্থ,
“আয় রোদ মাখি তোর হাতেতে
আয় সেজদা করি তোর হাতেতে”

অথচ আল্লাহ ছাড়া কাউকে সেজদা করা শিরক। অথচ এই সিনেমার পরিচালক খালিদ মোহাম্মদ, কাহিনীকার জাবেদ সিদ্দিকি ও সঙ্গীত পরিচালক অনু মালিক সবাই কিন্তু মুসলমান।

আরো পড়ুন :   মা হচ্ছেন সোনম কাপুর?

৪. তেরে লিয়েঃ- এই গানটি কুকি ভি গুলাটি পরিচালিত ও বিবেক ওবেরয় ও অরুণা শিল্ড্স অভিনীত ২০১০ সালের Prince সিনেমার। গানটিতে দুটি লাইন আছে…
“জান্নাতে সাজায়ি ম্যায়নে তেরে লিয়ে
ছোড় দি খুদায়ী ম্যায়নে তেরে লিয়ে”

যার অর্থ,
“জান্নাত সাজিয়েছি আমি তোর জন্য
খোদাকে ছেড়েছি আমি তোর জন্য”

এবার বলুন কোন মুসলমানের এই গান কি গাওয়া উচিৎ হবে ? গানটি কিন্তু পাকিস্তানের মুসলিম শিল্পী আতিফ আসলাম গেয়েছেন।

৫. সাজদাঃ- গানটি করন জোহর পরিচালিত ও শাহরুখ খান এবং কাজল অভিনীত ২০১০ সালের My Name Is Khan সিনেমার। গানটির লিরিক্স হচ্ছে..
“সাজদা তেরা সাজদা, কারু ম্যায় তেরা সাজদা
দিন র্যান কারু, নাহি চ্যান কারু
সাজদা তেরা সাজদা, কারু ম্যায় তেরা সাজদা
লাখ বার কারু, মেরি জান কারু”

যার অর্থ,
“সেজদা তোর সেজদা, করি আমি তোকে সেজদা
দিন রাত করি, অবিরাম করি
সেজদা তোর সেজদা, করি আমি তোকে সেজদা
লাখ বার করি, আমার জান করি”

এই সিনেমাটিতে দেখা যায় মুসলিম নায়ক সারাবিশ্বে মুসলমানদের নিয়ে ভ্রান্ত ধারনা দূর করেন। অথচ একটি খাস শিরকমূলক গান এই ছবিতেই আছে। গানটির সঙ্গীত আয়োজনে ছিলেন এহসান নামের এক মুসলিম সুরকার ও শিল্পী ছিলেন পাকিস্তানের রাহাত ফতেহ আলী খান।

৬. তু হি মেরি শাব হ্যাঃ- গানটি অনুরাগ বসু পরিচালিত, ইমরান হাশমি ও কঙ্গনা রানাউত অভিনীত ২০০৬ এর Gangster সিনেমার। গানটির কথা এরকম…
“তু হি মেরি শাব হ্যা, সুবহা হ্যা
তু হু দিন হ্যা মেরা
তু হি মেরা রাব হ্যা, জাহা হ্যা
তু হি মেরি দুনিয়া”

যার অর্থ,
“তুমি আমার রাত, আমার সকাল
তুমিই আমার দিন
তুমি আমার খোদা, আমার জগত
তুমিই আমার দুনিয়া”

প্রিয়তমার রুপের প্রশংসা করতে গিয়ে দিন, রাত, আকাশ, বাতাসের সাথে তুলনা করলে মানা যায়, তাই বলে স্বয়ং আল্লাহ পাকের সাথে !!! দুঃখের ব্যাপার গানের কথাগুলো সাঈদ কাদরী নামের এক মুসলিম গীতিকারের লেখা।

৭. বুল্লেয়াঃ- গানটি করন জোহর পরিচালিত, রনবীর কাপুর, আনুশকা শর্মা ও ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন অভিনীত ২০১৬ এর সিনেমা Ae Dil Hai Mushkil এর। সহজে বোঝার জন্য বলে রাখি গানটিতে “বুল্লেয়া” বলতে বিখ্যাত পাঞ্জাবি কবি ও সুফি দার্শনিক বুল্লে শাহকে বোঝানো হয়েছে। যার আসল নাম আব্দুল্লাহ শাহ্ কাদরী। যার জীবনযাত্রা ছিল অনেকটা বাংলাদেশের লালন ফকিরের মত। এই গানটির কথা এরকম…
“রাঞ্ঝা দি ইয়ার বুল্লেয়া, শুনলে পুকার বুল্লেয়া
তুহি তো ইয়ার বুল্লেয়া, মুর্শিদ মেরা মুর্শিদ মেরা
তেরা মুকাম কামলে, সারহাদ কে পাড় বুল্লেয়া
পরওয়ারদিগার বুল্লেয়া, হাফিজ তেরা মুর্শিদ মেরা”

যার অর্থ,
“প্রেমীদের সাথী বুল্লেয়া, শুনো গো ডাক বুল্লেয়া
তুমিই তো বন্ধু বুল্লেয়া, দিশারী আমার দিশারী আমার
তোমার ঠিকানা ও পাগলা, সীমানার ওপার বুল্লেয়া
পালনকর্তা বুল্লেয়া, রক্ষক সবার দিশারী আমার”

নিঃসন্দেহে বুল্লেয়া বা বুল্লে শাহ তার সময়ের একজন পরম শান্তিপ্রিয় মানবতাবাদী কবি ছিলেন যিনি মুসলিম-শিখ সংঘাত দূর করতে ভূমিকা রেখেছিলেন। তবুও আল্লাহ পাক ছাড়া কাউকে মঙ্গলের জন্য ডাকা বা স্মরণ করা বা তাকে রক্ষাকর্তা বা পালনকর্তা বলে অভিহিত করা শিরক ছাড়া আর কি ?

৮. দামা দাম মাস্ত কালান্দারঃ- এই অতি পরিচিত, ঐতিহ্যবাহী ও জনপ্রিয় সুফি গানটি বিখ্যাত সুফি কবি আমির খসরু কর্তৃক রচিত ও বুল্লে শাহ কর্তৃক সংকলিত। গানটি পাকিস্তানের বিখ্যাত আলেম, সুফি সাধক ও ধর্মীয় কবি লাল শাহবাজ কালান্দারকে নিয়ে লেখা। গানটি বিভিন্ন সময়ে উপমহাদেশের বিভিন্ন শিল্পী বিভিন্ন সিনেমা ও এলবামে গেয়েছেন। গানের কথাগুলো এমন…
“ও লাল মেরি পাত রাখিও ভালা ঝুলে লালান
সিন্ধরি দা, সেওয়ান দা, শাখি শাহবাজ কালান্দার
দামা দাম মাস্ত কালান্দার, আলী দা পেহলা নাম্বার”

যার অর্থ,
“ও লাল আমার আমায় করো রক্ষা ও লাল সাধক
সিন্ধ প্রদেশের, সেওয়ান শহরের, মহান শাহবাজ কালান্দার
দমে দমে কালান্দারের নাম, সবার আগে আলীর নাম”

বোঝাই যাচ্ছে গানটিতে অতিমাত্রায় একজন সুফি সাধককে প্রশংসা করা হচ্ছে, তার কাছে আশ্রয় প্রার্থনা করা হচ্ছে, যা আল্লাহ ছাড়া কারো কাছেই চাওয়া ঠিক নয়। তাছাড়া সবার আগে আলী (রাঃ) নয়, বরং আল্লাহ ও তার রাসূলের নামই নিতে হবে।

আরো পড়ুন :   রমজানে যৌন আবেদনময়ী পোশাক পরায় মালয়েশিয়ায় ৩৯ নারীকে চপেটাঘাত

৯. ভীগি সি ভাগি সিঃ- গানটি প্রকাশ ঝা পরিচালিত, রনবীর কাপুর ও ক্যাটরিনা কাইফ অভিনীত ২০১০ সালের Rajneeti সিনেমার। গানটির দ্বিতীয়াংশের কথাগুলো এরকম…
“তুঝে দেখা তো খিলা হু, তেরি চাহাত মে ঘুলা হু
মিলে মন্দির মে খুদা যু, ম্যায় তো তুঝমে ইউ মিলা হু”

যার অর্থ,
“তোমায় দেখে বিকশিত হই, তোমার প্রেমেতে বিলীন হই
যেভাবে মন্দিরে খোদাকে পাই, সেভাবে তোমাকেও আমি পেয়েছি”

গানটির কথা লিখেছেন ইরশাদ কামিল নামের এক ভারতীয় মুসলিম কবি ও গীতিকার। বলাবাহুল্য সংখ্যাগরিষ্ঠদের “খুশি” রাখতেই তিনি মসজিদে নয়, মন্দিরে খোদাকে পেয়েছেন। আর প্রেমিকাকে পাওয়ার মত তুচ্ছ ব্যাপারকে তুলনা করেছেন খোদাকে পাওয়ার মত ঐশী ব্যাপারের সাথে।

১০. রাব কা শুকরানাঃ- এই গানটি হলো কুনাল দেশমুখ পরিচালিত, ইমরান হাশমি ও ইশা গুপ্তা অভিনীত ২০১২ সালের সিনেমা Jannat 2 এর। গানের কথাগুলো এমন…
“তুহি আব মেরা দ্বীন হ্যা, ঈমান হ্যা, রাব কা শুকরানা
মেরা কালমা হ্যা তু, আজান হ্যা, রাবকা শুকরানা”

যার অর্থ,
“তুমিই এখন আমার দ্বীন, আমার ঈমান, খোদার শুকরিয়া
আমার কালেমা তুমি, আজান তুমি, খোদার শুকরিয়া”

এই গানেরও গীতিকার সাঈদ কাদরী। যিনি সুফিবাদের দোহাই দিয়ে প্রেমিকাকে দ্বীন, ঈমান, কালেমা ও আজানের মত বিষয়ের সাথে তুলনা করে ইসলামকে ছেলেখেলা মনে করেছেন।

১১. ইয়া আলীঃ- গানটি অনুরাগ বসু পরিচালিত, ইমরান হাশমি ও কঙ্গনা রানাউত অভিনীত ২০০৬ এর Gangster সিনেমার। গানটির কথা এরকম…
“ইয়া আলী, রেহেম আলী
ইয়া আলী, ইয়ার পে কুরবা হ্যা সাবহি
ইয়া আলী, মাদাদ আলী
ইয়া আলী, ইয়ে মেরি জান ইয়ে জিন্দেগি”

যার অর্থ,
“হে আলী, দয়া করো আলী
হে আলী, বন্ধুর জন্য সবার জান কুরবান
হে আলী, সাহায্য করো আলী
হে আলী, এই আমার জান এই জীবন”

এটিও সাঈদ কাদরী রচিত একটি শিয়া সুফিবাদী গান। যেখানে হযরত আলী (রাঃ) কে হাজির নাজির ভেবে তার কাছে দয়া ও সাহায্য কামনা করা হয়েছে। যা সম্পূর্ণ ইসলাম পরিপন্থী কাজ।

১২. হাসিনো কো আতে হ্যাঃ- গানটি মেহুল কুমার পরিচালিত, অক্ষয় কুমার ও কারিশমা কাপুর অভিনীত ১৯৯৭ সালের সিনেমা Lahoo Ke Do Rang সিনেমার। গানের কথাগুলো এমন…
“হাসিনো কো আতে হ্যা, ক্যায়া ক্যায়া বাহানে
খুদা ভি না জানে তো হাম ক্যায়সে জানে
দিওয়ানো কো আতে হ্যা, ক্যায়া ক্যায়া বাহানে
খুদা ভি না জানে তো হাম ক্যায়সে জানে”

যার অর্থ,
“সুন্দরীরা জানে যে, কি কি বাহানা
খোদা-ই জানে না, তো আমরা কি করে জানবো
প্রেমিকরা জানে যে, কি কি বাহানা
খোদা-ই জানে না, তো আমরা কি করে জানবো”

আল্লাহ পাক সর্বশ্রোতা, সর্বজ্ঞ। অথচ তামাশার ছলে এই গানটিতে আল্লাহ পাকের সেই গুণকে অবজ্ঞা করা হয়েছে। এই গানটি বাংলাদেশের “অধিকার চাই” সিনেমাতেও ব্যবহার করা হয়েছে। তবে বাংলাটায় কথাগুলো ছিল এরকম…
“সুন্দরীদের মনে কি ছলনা, আমার বাবার বাবাও তা জানে না
পুরুষেরই মনে কি বাসনা, আমার মায়ের মাও তা জানে না”

১৩. সাথী তেরা প্যায়ারঃ- গানটি টনি জুনেজা পরিচালিত, অমিতাভ বচ্চন ও জয়া প্রদা অভিনীত ১৯৯৪ এর সিনেমা Insaniyat এর। গানটির কথাগুলো এরকম…
“সাথী তেরা প্যায়ার পূজা হ্যা,তেরে সিভাহ কৌন মেরা দুজা হ্যা ইয়ার
ইতনে দিনো কে বাদ ইয়ে সুরাত দেখি হ্যা, ইক ভাগবান টুটি মূরাত দেখি হ্যা”

যার অর্থ,
“সাথী তোমার প্রেম পূজার মত, তুমি ছাড়া কে-ই বা আমার দ্বিতীয় জন আছে
এতদিন পর এই মুখ দেখেছি, এক ভগবানের ভাঙ্গা মূর্তি দেখেছি”

এই গানটি এভারগ্রিন হলেও এর এই কথাগুলো মুসলমানদের ফেভারে নেই। মানুষকে ভালোবাসা ইবাদতের শামিল হলেও সেটা কোনভাবেই পূজার কাতারে পড়বে না। আর মানুষের চেহারায় স্রষ্টার রুপ দেখার কথা বলা নির্ঘাত শিরক।

আরো পড়ুন :   একাধিক পুরুষের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে জড়িয়েছি, তাতে কী হয়েছে?

১৪. তুহি রাব তুহি দুয়াঃ- এই গানটি বিক্রম ভট্ট পরিচালিত, কারিশমা কাপুর ও রজনীশ ডুজ্ঞাল অভিনীত ২০১২ এর Dangerous Ishq সিনেমার। গানটির কথাগুলো এরকম…
“তুহি হ্যা তুহি মেরা জাহান
তুহি রাব তুহি দুয়া”

যার অর্থ,
“তুমি শুধু তুমিই আমার দুনিয়া
তুমিই খোদা, তুমিই দোয়া”

প্রকাশ্য শিরকমূলক এই গানটির গীতিকার সাব্বির আহমেদ নামের একজন মুসলিম আর কণ্ঠশিল্পী সেই রাহাত ফতেহ আলী খান।

১৫. গড আল্লাহ অর ভগবানঃ- গানটি রাকেশ রোশন পরিচালিত, হৃত্বিক রোশন ও প্রিয়াঙ্কা চোপড়া অভিনীত ২০১৩ সালের সিনেমা Krrish 3 এর। গানটির কথাগুলো এরকম…
“গড আল্লাহ অর ভগবান, নে বানায়া ইক ইনসান
আয়া জামিন পে লেকে বোহ, উপারওয়ালে কা ফরমান”

যার অর্থ,
“গড আল্লাহ আর ভগবান, বানিয়েছেন এক ইনসান
এসেছে সে নিয়ে ধরায়, উপরওয়ালারই ফরমান (বার্তা)

প্রথমত তিন ধর্মের লোকদেরই “খুশি” করার জন্য স্রষ্টার নাম তিনভাবে নেওয়া হয়েছে এমন স্টাইলে যাতে মনে হয় তিন ধর্মের তিন স্রষ্টা মিলেমিশে “কৃষ” নামের এক মহামানবকে সৃষ্টি করেছেন। আবার কৃষকে এমন মহামানব হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে যে খোদার কাছ থেকে বার্তা নিয়ে এসেছেন। অথচ আল্লাহর বার্তাবাহক মহামানব হচ্ছেন নবী ও রাসূলগণ।

১৬. সালাম আয়াঃ- গানটি অনিল শর্মা পরিচালিত, সালমান খান ও জেরিন খান অভিনীত ২০১০ সালের সিনেমা Veer এর। শুনতে খুব সুন্দর হলেও এই গানটির দুটি লাইন এরকম…
“যাব বোলে বোহ যাব বোলে
উসকি আঁখোমে রাব বোলে”

যার অর্থ,
“যখনই বলে সে যখনই কথা বলে
তার চোখ দিয়ে স্রষ্টা কথা বলে”

গানটির সুরকার দুই মুসলিম যুগল সাজিদ-ওয়াজিদ। তারা কিভাবে পারে সামান্য মানুষের চোখের সাথে সৃষ্টিকর্তার তুলনা করতে ???

অনেকে হয়তো “গান তো গান-ই, এটা সিরিয়াসলি নেওয়ার কি আছে” বলে মন্তব্য করবেন। তাদের উদ্দেশ্যে বলবো “গালি তো কেবল কিছু শব্দের সমন্বয় মাত্র, তা শুনলে রাগ করার কি আছে ?” সকল মুসলিম ভাই-বোনদের প্রতি আমার অনুরোধ রইলো শিরকমূলক গান গাওয়া বা শোনা থেকে বিরত থাকুন। সেটা বাংলা, ইংরেজি, হিন্দি, উর্দু যে ভাষারই হোক। সন্দেহ থাকলে শাব্দিক ও ভাবগত অর্থ না জেনে কোন গান শুনবেন না। আল্লাহ সবাইকে ভাল রাখুন।