মেহেদীর রং শুকানোর আগেই দুধ খাওয়াইয়ে হত্যা নববধূকে

মেহেদীর রং শুকানোর আগেই গলাচিপায় ফার্সি আক্তার(১৯) নামের এক নববধূর অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার ডাকুয়া ইউনিয়নের হোগলবুনিয়া গ্রামে শুক্রবার রাত ১০টায়। ডাকুয়া ইউনিয়নের ইউপি সদস্য ও ফার্সি আক্তারের বড় ভাই সায়েম মৃধা তার বোনকে পাশের বাড়ির লোকজন হত্যা করেছে বলে অভিযোগ তোলেন।
জানা গেছে, একমাস আগে আমখোলা ইউনিয়নের শফিকুল আলম খানের পুত্র অপু খানের সাথে ডাকুয়া ইউনিয়নের তোফাজ্জেল মৃধার একমাত্র মেয়ে ফার্সি আক্তারের বিবাহ হয়। গত সোমবার ফার্সি আক্তারকে শ্বশুর বাড়ি নিয়ে যাওয়া হয়। বৃহস্পতিবার কনেপক্ষ বর অপু খানসহ তাদের মেয়েকে তুলে আনে। শুক্রবার বিকেলে কনে বাড়ির পাশে রায়হান ও তামান্নাসহ নব দম্পতি ঘুরতে বের হয়। সন্ধ্যা হলে রায়হান ও তামান্নার অনুরোধে তাদের বাড়িতে যায়। তাদের আপ্যয়নে নবদম্পতিকে দুধ পান করতে দেয়া হয়।

আরো পড়ুন :   বৈঠকে ২০ দল, নেই অলি-পার্থ

কনে ফার্সি বেগম ঐ দুধ পান করে বাড়িতে এসে অসুস্থ হয়ে পড়ে। এ সময় বারবার বমি হয়। ফার্সি আক্তার গুরুত্বর অসুস্থ হয়ে পড়লে ওই রাতেই গলাচিপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হয় এবং কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ তথ্য নিশ্চিত করলেন ডাকুয়া ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও ফার্সি আক্তারের বড় ভাই সায়েম মৃধা।
এ ব্যাপারে গলাচিপা থানা এসআই মোঃ ইব্রাহীম জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পটুয়াখালী মর্গে পাঠানো হয়েছে এবং থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে।