বোর্ড সভাপতির সিগন্যাল না আসায় কোচ হওয়া হচ্ছেনা সুজনের

স্টিভ রোডসের সঙ্গে চুক্তি বাতিলের পর থেকেই জাতীয় দলের ভারপ্রাপ্ত কোচ হিসেবে নাম উঠে আসে খালেদ মাহমুদ সুজনের। কিন্তু তিনি বারবার গণমাধ্যমে বলেছিলেন, ভারপ্রাপ্ত নয়; জাতীয় দলের স্থায়ী কোচ হতে চান। কিন্তু কোচ হিসেবে আবেদনের সময়সীমা শেষ হলেও আবেদন করেননি সুজন।এদিকে শ্রীলঙ্কা সফরের জন্য সুজনকেই ভারপ্রাপ্ত কোচ হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। প্রধান কোচের জন্য কদিন আগে বিসিবি পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ ছিল, প্রধান কোচের পদে আবেদন করার শেষ তারিখ ১৮ জুলাই। আজ বৃহস্পতিবার শেষ হয়েছে আবেদনের শেষ তারিখ।আবেদন না করার কারণ ব্যখ্যা করে সুজন বলেন, ‘খেলোয়াড়ি জীবনে আমি সব সময়ই অধিনায়কের নির্দেশে মেনেছি। এখনো মানি। অধিনায়কের দিক থেকে সাড়া পাইনি বলে আর আবেদন করিনি।’খেলোয়াড়ি জীবনে সুজনের অনেক অধিনায়ক থাকলেও এখন তার ‘অধিনায়ক’ হচ্ছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান। নাজমুলের কাছ থেকে সবুজ সংকেত পাননি বলেই প্রধান কোচ হতে আবেদন করেননি তিনি। সুতরাং মোটামুটি পরিস্কার যে, প্রধান কোচ হিসেবে এবারও কোনো বিদেশি আসছেন।

আরো পড়ুন :   শূন্য রানেই গেইলকে ফিরিয়ে দিলেন সাইফুদ্দিন