বাবাকে ঔষধ আনতে পাঠিয়ে মেয়েকে ধর্ষণ করলো চিকিৎসক

রাজধানীর দক্ষিণখানে একটি ক্লিনিকে চিকিৎসা নিতে আসা ১৩ বছরের এক শিশুকে হাত-পা বেঁধে ধর্ষণ করেছে এক পল্লী চিকিৎসক।

ধর্ষক চিকিৎসকের নাম- বিজয় কৃষ্ণ তালুকদার। সে দক্ষিণখানের চালাবন এলাকার ‘দরিদ্র পরিবার সেবা সংস্থা নামে একটি ক্লিনিকের চিকিৎসক। ধর্ষণের শিকার শিশুটি স্থানীয় একটি মাদরাসার চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী।

গত শনিবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে ওই শিশুকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রাতে ধর্ষণের অভিযোগে শিশুটির পরিবার মামলা দায়ের করলে, সে মামলার আসামি চিকিৎসক বিজয় কৃষ্ণকে গ্রেফতার দেখায় পুলিশ।

শিশুটির বাবা বলেন, আমরা উত্তরখান এলাকায় থাকি। গত ২৩ এপ্রিল আমার মেয়ের জ্বর হলে তাকে দক্ষিণখানের চালাবন এলাকার ‘দরিদ্র পরিবার সেবা সংস্থা নামে একটি ক্লিনিকে নিয়ে যাই। সেখানে পল্লী চিকিৎসক বিজয় তাকে দেখেন এবং প্রেসক্রিপশনে ‘সিডিল’ লিখে সেটা আনতে পাঠান আমাকে।

আরো পড়ুন :   চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ, প্রতিবাদ করায় চাচাকে হত্যা করলো ধর্ষক

আমি দীর্ঘ এক থেকে দেড় ঘণ্টা সময় খুঁজে বের করে সিডিল নিয়ে ক্লিনিকে যাই। এরপর চিকিৎসা শেষে মেয়েকে বাসায় নেয়া হয়।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, পল্লী চিকিৎসক বিজয় আমার মেয়েকে ভয় দেখানোর কারণে এতোদিন সে কিছু বলেনি। ২৬ এপ্রিল (শুক্রবার) সে আমাদের কাছে সবকিছু খুলে বলে। সে জানায়, ওইদিন আমি ওষুধের জন্য বাইরে গেলে, এ সুযোগে বিজয় তাকে ঘুমের ট্যাবলেট খাইয়ে হাত-পা বেঁধে ধর্ষণ করে।

দক্ষিণখান থানার ওসি (তদন্ত) শফিকুল গণি বলেন, ওই শিশুর পরিবারের পক্ষ থেকে একটি মামলা করা হয়। এ পরিপ্রেক্ষিতে পল্লী চিকিৎসক বিজয়কে গ্রেফতার করা হয়েছে। বিস্তারিত খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ওই শিশুকে চিকিৎসার জন্য শনিবার ঢামেক হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে।

আরো পড়ুন :   মদ খাওয়া নিয়ে সংঘর্ষ : এইচএসসি পরীক্ষার্থী নিহত

Leave a Reply

Your email address will not be published.