ঘূর্ণিঝড় ‘ফণী’ ঠেকাতে সাতক্ষীরায় পুলিশের ব্যাপক প্রস্তুতি

প্রবল ঘূর্ণিঝড় ফণী মোকাবেলার প্রস্তুতি হিসেবে সাতক্ষীরায় পুলিশের সতর্কীকরণ মহড়া শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ থানার বিভিন্ন এলাকায় পুলিশ মহড়া দেয়। এ সময় বিভিন্ন এলাকায় পথসভা করে জনসাধারণকে সচেতন করা হয়। মহড়ায় নেতৃত্ব দেন কালিগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাসান হাফিজুর রহমান।

এছাড়াও জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে ঘূর্ণিঝড় ফণী মোকাবেলা ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। খাবার ও ওষুধ সংগ্রহে রাখা হয়েছে। আক্রান্ত এলাকায় দ্রুত যোগাযোগের জন্য নৌযান ভাড়া করে রাখা হয়েছে।

সাতক্ষীরার পুলিশ সুপার মো. সাজ্জাদুর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, সাতক্ষীরার উপকূলীয় আশাশুনি, শ্যামনগর ও কালিগঞ্জ এই তিন উপজেলায় পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে ঘূর্ণিঝড় ফণী মোকাবেলায় প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। ইতিমধ্যে পুলিশের পক্ষ থেকে জনসাধারণকে সতর্কীকরণ মহড়া চলছে। মাইকিং করে জনসাধরণকে সচেতন করা হচ্ছে। পুলিশের পক্ষ থেকে পর্যাপ্ত শুকনা খাবার, স্যালাইন ও ওষুধপত্র সংগ্রহে রাখা হয়েছে। আক্রান্ত হওয়ার পর পানি পথে দ্রুততার সঙ্গে যাতায়াত করার জন্য নৌযান ভাড়া করে রাখা হয়েছে। যাতে করে আক্রান্ত মানুষদের পাশে দ্রুত যাওয়া যায় এবং সহযোগিতা করা যায়। বিভিন্ন সংগঠনের যারা স্বেচ্ছাসেবক রয়েছে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখা হচ্ছে।

আরো পড়ুন :   বিয়ের পিঁড়িতে অপু, জয়ের কী হবে

তিনি আরও বলেন, সর্বসাধারণের জানমাল রক্ষার জন্য পুলিশের সদস্যরা তৎপর থাকবে। এছাড়া ঘূণিঝড়ের প্রভাবে যদি গাছপালা উপড়ে পড়ে রাস্তা বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয় তবে দ্রুততার সঙ্গে সেগুলো সরিয়ে ফেলতে পর্যান্ত প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

এদিকে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকেও সর্বোচ্চ প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। প্রস্তুত রাখা হয়েছে ১৩৭টি আশ্রয়কেন্দ্রসহ উপকূলীয় সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। প্রস্তুত রয়েছে ৩ হাজার ৩৬৬ জন স্বেচ্ছাসেবক । সকল সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীদের ছুটি বাতিল করে স্ব-স্ব কর্মস্থলে থাকতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।