ক্রিকেটারদের জন্য ভিআইপি নিরাপত্তা ব্যবস্থা দিচ্ছে বিসিবি

নিজস্ব খরচে বিসিবি ক্রিকেটারদের ভিভিআইপি নিরাপত্তা ব্যবস্থা দিচ্ছে আয়ারল্যান্ড এবং ইংল্যান্ডে।

নিজেদের খরচে অন্তত সাতজন নিরাপত্তা এক্সপার্ট নিয়োগ দিয়েছে বিসিবি। পাশাপাশি আইসিসি থেকে বিশ্বকাপ চলাকালীন যে দুইজন নিরাপত্তা লিঁয়াজো অফিসার দেয়া হয়েছে তাদেরকেও নিজ খরচে আয়ারল্যান্ড এবং লিস্টারশায়ার ক্যাম্পে রাখবে বিসিবি।

সাধারণত অস্ট্রেলিয়া এবং ইংল্যান্ড দল বিদেশ সফরের সময় নিজস্ব নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ সাথে রাখতো এতোদিন।

ক্রাইস্টচার্চ ঘটনার পর বিসিবির পক্ষ থেকে ক্রিকেটারদের নিরাপত্তার বিষয়ে বিশেষভাবে গুরুত্ব দেয়া হয়।

আয়ারল্যান্ড সফরের পর লিস্টারশায়ারে নিজস্ব খরচে আট দিনের ক্যাম্প করবে বিসিবি। এজন্য লিস্টারশায়ার অথোরিটির কাছে সার্বক্ষণিক দুইজন গানম্যান চেয়েছিলো বিসিবি। কিন্তু লিস্টারের আইন অনুযায়ী সশস্ত্র পাহারা শুধু রাজপরিবারের সদস্যরাই পেয়ে থাকে। তবে বিশ্বকাপের জন্য আইসিসি থেকে দেয়া দুইজন লিঁয়াজো নিরাপত্তা কর্মকর্তাকে লিস্টারেই বাংলাদেশ দলের সাথে যোগ দিতে বলেছিলো ইসিবি।

আরো পড়ুন :   '৯৮ এ জন্ম নেওয়া রশিদ খান দেখেছন ৯২ বিশ্বকাপ!

বিসিবি তাদের নিয়ে এবার আয়ারল্যান্ডেও নিয়ে যাচ্ছে নিজ খরচে।

এছাড়া লন্ডনের বাংলাদেশ দূতাবাসের সাথে যোগাযোগ করে বিসিবি একটি সনামধন্য প্রাইভেট নিরাপত্তা সংস্থার চারজনকে ভাড়া করেছে। সাধারণত বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী বা রাষ্ট্রপতি ইংল্যান্ড সফরে গেলে রাষ্ট্রীয়ভাবে বাংলাদেশ ওই বিশেষ নিরাপত্তা সংস্থাকে নিজস্ব নিরাপত্তার কাজে নিয়োগ দেয়। ওই সংস্থার চারজন সদস্য এবার আয়ারল্যান্ড থেকেই দলের সাথে থাকবেন।

এছাড়া বাংলাদেশ থেকে একটি রাষ্ট্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার তিনজন নিরাপত্তা এক্সপার্ট এবং বিসিবির নিরাপত্তা বিভাগের পরিচালক দলের সাথে থাকছেন।

অর্থাৎ নিরাপত্তা বিভাগের পরিচালক মেজর (অব.) হুসেইন ইমাম ছাড়াও সাতজন নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞকে নিজ থেকে দলের সাথে রাখবে বিসিবি।

এর সাথে আইসিসি থেকে দেয়া দুইজন লিঁয়াজো নিরাপত্তা অফিসারকে হিসাব করলে দলের সাথে মোট নয়জন সিকিউরিটি এক্সপার্ট থাকবে মেজর (অব.) হুসেইন ইমামের পাশাপাশি।

আরো পড়ুন :   বিশ্বকাপের জন্য ভারতের ১৫ সদস্যর স্কোয়াড ঘোষনা

ক্রিকেটারদের জন্য বেশ বড়সড় নিরাপত্তা বাহিনী দিয়েছে বিসিবি!