ইয়াবার ঘাঁটি রোহিঙ্গা ক্যাম্প

সীমান্ত শহর টেকনাফে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতায় একের পর এক ইয়াবা কারবারি নিহত এবং ১০২ ইয়াবা কারবারি আত্মসর্মপন ঘটনার পর থেকে টেকনাফে বড় ধরনের ইয়াবার চালান পাচারের ঘটনা কমলেও বেড়েছে উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্প কেন্দ্রিক ইয়াবার চালান পাচার। শুক্রবার দিবাগত রাতে ইয়াবার একটি বড় চালান বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ঢুকার পথে ইয়াবা কারবারিদের ধাওয়া করে উখিয়া থানা পুলিশ ১০ কোটি টাকা মূল্যের ৩ লাখ ৫০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে।
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (উখিয়া সার্কেল) নিহাদ আদনান তাইয়ান জানান, গোপন সংবাদে উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আবুল খায়েরসহ একদল পুলিশ বালুখালী পানবাজারের প্রায় আধা কিলোমিটার দক্ষিণে সড়কের ব্রীজের নিচে উৎপেতে অবস্থান করছিল। গভীর রাতের দিকে ৪/৫ জন ইয়াবা কারবারি ইয়াবার চালান নিয়ে ব্রীজ পার হতেই তাদেরকে ধরার জন্য হানা দিলে তারা ইয়াবার চালানটি রাস্তায় ফেলে পালিয়ে যায়।

আরো পড়ুন :   ইয়াবাসহ ছাত্রলীগ নেতা গ্রেফতার

তিনি বলেন, পুলিশের সাথে থাকা স্থানীয় চৌকিদার জুনু পালিয়ে যাওয়া ইয়াবা কারবারিদের মধ্যে হানিফ নামের একজন ইয়াবা কারবারিকে চিনে ফেলেছেন।

উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আবুল খায়ের জানান, এ ঘটনায় হানিফসহ আরো ৩/৪ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের একটি মামলা রুজু করা হয়েছে।