1. himucinemakhor1@gmail.com : Himel Himu : Himel Himu
  2. hridoyahammed2018@gmail.com : hridoyahmmed :
  3. jubayer.jay@gmail.com : Jubayer Ahmed : Jubayer Ahmed
  4. mdridoysamrat2014@gmail.com : samrat :
  5. shahabuddin1234@gmail.com : Suheb Khan : Suheb Khan
  6. admin@sylhetmail24.com : সিলেটমেইল২৪ ডটকম :
শনিবার, ০৪ এপ্রিল ২০২০, ১২:২০ অপরাহ্ন

‘আলহামদুলিল্লাহ’ সিলেটে এখন পর্যন্ত কোন করোনা রোগী শনাক্ত হয়নি : এ কে মোমিন

  • প্রকাশিত : বুধবার, ২৫ মার্চ, ২০২০
  • ১৩০ বার পড়া হয়েছে

প্রবাসী অধ্যুষিত অঞ্চল সিলেট, এখানে করো’না ভাই’রাসে আক্রান্ত বা সংক্রামনের আশংকা বেশি থাকলেও এখন পর্যন্ত কোন করো’না রোগী পাওয়া যায়নি। দুবাই প্রবাসী যুবক এবং লন্ডন প্রবাসী ২ মহিলার শরীরে করো’না ভাই’রাস নেই এমন রির্পোট আইইডিসিআর থেকে আসায় সিলেটবাসীকে মহান সৃষ্টিক’র্তার শুকরিয়া আদায় করতে দেখা গেছে। সর্বশেষ চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃ’ত্যুবরণকারী মহিলার রির্পোট যখন নেগেটিভ আসে তখন অনেকেই উচ্চস্বরে আলহাম’দুলিল্লাহ শব্দ উচ্চারণ করতে দেখা যায়।

 

বিষয়টি নিয়ে সিলেট-১ আসনের এমপি ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন খুবই তৎপর রয়েছেন। তিনি সবসময় সিলেটের স্থানীয় প্রশাসন এবং স্বাস্থ্য বিভাগকে প্রয়োজনীয় পরাম’র্শ এবং নির্দেশনা দিচ্ছেন।গত ২২ মা’র্চ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এমপি সিলেটবাসী এবং প্রবাসীদের উদ্দেশ্যে এক ভিডিও বার্তায় বেশ কিছু সর্তকতামূলক তথ্য জানিয়েছেন।পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমি সবসময়ই আপনাদের সহযোগিতায় পাশে আছি।প্রশাসনের সাথে সবসময় আমা’র যোগাযোগ রয়েছে, তারপরও আপনারা যদি আপনাদের যেকোন মূল্যবান মতামত বা পরাম’র্শ দিয়ে সহযগিতা করতে চান তাহলে সরাসরি আমাকে মেইল করুন-fm@mofa.gov.bd.

 

রবিবার গণমাধ্যমে প্রেরিত ভিডিও বার্তাটি মুহূর্তের মধ্যে ভাই’রাল হয়ে যায়।সিলেটে করো’না ভাই’রাস স’ন্দেহে চিকিৎসাধীন দুবাই ফেরত যুবক করো’না ভাই’রাসে আক্রান্ত নয় বলে জানিয়েছেন সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতা’লের উপ-পরিচালক ডা. হিমাংশু লাল রায়। শনিবার (৭ মা’র্চ) রাত ১০টার দিকে তিনি বিষয়টি নিশ্চিত করেন।তিনি বলেন, সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) বৃহস্পতিবার (৫ মা’র্চ) ওই যুবকের র’ক্তের নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় নিয়ে যায় পরীক্ষার জন্য। আমাদেরকে তারা মৌখিকভাবে জানিয়েছেন পরীক্ষা-নীরিক্ষায় রোগীর শরীরে করোনা ভাই’রাসের উপস্থিতি পাওয়া যায়নি।

 

ওই যুবক গত ২৯ ফেব্রুয়ারি দুবাই থেকে দেশে আসেন। শ্বা’সক’ষ্টজনিত রোগ দেখা দেওয়ায় গত বুধবার প্রথমে তিনি জালালাবাদ রাগীব রাবেয়া মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতা’লে যান। বিস্তারিত জানার পর চিকিৎসকরা তাকে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল কিংবা ঢাকার কুর্মিটোলা হাসপাতা’লে চিকিৎসা নেওয়ার পরাম’র্শ দেন। পরবর্তীতে তিনি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতা’লের জরুরি বিভাগে গেলে চিকিৎসকরা তার সমস্যা শুনে ধারণা করেন তিনি করো’না ভাই’রাসে আক্রান্ত হতে পারেন। পরে জে’লা প্রশাসনের নির্দেশে তাকে শহীদ ডা. শামসুদ্দিন আহম’দ হাসপাতা’লে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়।

 

গত রবিবার সিলেট শহীদ শামসুদ্দীন হাসপাতা’লে চিকিৎসাধীন যুক্তরাজ্য ফেরত আরেক মহিলার রির্পোট নেগেটিভ আসে। গত সপ্তাহে এই মহিলা সর্দি-জ্বর নিয়ে সিলেট শহীদ শামসুদ্দীন হাসপাতা’লে ভর্তি হলে তার র’ক্ত ঢাকায় পাঠানো হয়েছিল ।এদিকে সিলেটে শহীদ শামসুদ্দিন আহম’দ হাসপাতা’লের আইসোলেশনে মা’রা যাওয়া যুক্তরাজ্য প্রবাসী নারী করো’নাভাই’রাসে আক্রান্ত ছিলেন না।সোমবার রাতে আইইডিসিআর’র প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মক’র্তা ডা. এ এস এম আলমগীর এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, যুক্তরাজ্য ফেরত ওই নারীর ম’রদেহের মুখের লালাসহ বিভিন্ন নমুনা পরীক্ষা করে করো’নাভাই’রাস পাওয়া যায়নি। ডা. আলমগীর আরো জানান, করো’নাভাই’রাসে আক্রান্ত ছিলেন কিনা- জানতে মৃ’ত্যুর আগেই ওই প্রবাসীর র’ক্ত, ঘাম ও লালার নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআর। ৪৮ ঘণ্টা পর রিপোর্ট প্রকাশ করার কথা ছিল। এ তথ্য জানার পর আশ’ঙ্কামুক্ত হলো ওই প্রবাসীর পরিবার।

৪ মা’র্চ যুক্তরাজ্য থেকে দেশে ফেরেন ওই নারী। ১৬ দিন পর জ্বর, সর্দি ও শ্বা’সক’ষ্ট থাকায় সিলেট শহীদ শামসুদ্দিন আহম’দ হাসপাতা’লে ভর্তি হন তিনি। রোববার ভোরে আইসোলেশনে থাকার সময় তার মৃ’ত্যু হয়। ওইদিনই নগরীর মানিকপীরের টিলায় তার দাফন হয়।সর্বশেষ মৌলভীবাজারে মা’রা যাওয়া লন্ডন প্রবাসী করো’না আক্রান্ত নয় বলে প্রাথমিক পর্যবেক্ষনে প্রতিয়মান হয়েছে বলে জানান মৌলভীবাজার সিভিল সার্জন ডা: তৌহিদ আহম’দ।তিনি জানান, খবর পেয়েছিলেন জ্বর শর্দি নিয়ে অ’সুস্থ হয়ে তিনি মা’রা গেছেন। তাই হাসপাতা’লের ডাক্তার স্টাফ ও ওই মহিলার বাসা’সহ আসে পাশের ৫টি বাসার সব মানুষকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রেখে তারা বিষয়টি গভীর অনুসন্ধান করেন।

সোমবার বিকেল ৪টা থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত প্রবাস ফেরত বেগমের স্বামীর সাথে কথা বলে ও বিভিন্ন কাগজপত্র পর্যবেক্ষন করে তিনি করো’না সংক্রমনে মা’রা যাননি বলে তাদের কাছে প্রতিয়মান হয়েছে বলে জানান।বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সিলেট প্রবাসী অধ্যুষিত অঞ্চল হবার কারণে এখানে করো’না ভাই’রাসে সংক্রামনের ঝুকি রয়েছে। এই ঝুকি মোকাবেলায় সচেতনতার কোন বিকল্প নেই।

অনুগ্রহ করে শেয়ার করুন

আরো পড়ুন
© 2020 All rights reserved by sylhetmail multimedia
Develop By sylhetmail24.com